July 1, 2022, 11:56 pm

News Headline :

প্রধানমন্ত্রী নার্ভাস হয়ে গেছেন : মির্জা ফখরুল

যমুনা নিউজ বিডিঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন অভিযোগ করে তাঁকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। অন্যথায় জনগণ তাঁকে ক্ষমা চাওয়ারও সুযোগ দেবে না বলে প্রধানমন্ত্রীকে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

আজ সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা মহানগর বিএনপি (উত্তর-দক্ষিণ) আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিএনপি মহাসচিব এই হুঁশিয়ারি দেন। খালেদা জিয়াকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী তাঁর এক বক্তৃতায় বলেছেন, ‘খালেদা জিয়াকে পদ্মাসেতু থেকে টুস করে ফেলে দেওয়া উচিত।’

প্রধানমন্ত্রীর ওই মন্তব্যের সমালোচনা করতে গিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এটা কেন করেছেন তিনি (প্রধানমন্ত্রী) ? এটা করেছেন এই জন্য যে, তিনি এখন নার্ভাস হয়ে গেছেন। তিনি দেখতে পাচ্ছেন যে, তাঁর ক্ষমতার দিন শেষ, এখন আর সামনে তিনি ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। তাঁর তখতে তাউস টলমল হয়ে গেছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ধিক্কার দেওয়ার ভাষা আমাদের জানা নেই। আমরা ভাবতেও পারি না যে একটি দেশের প্রধানমন্ত্রীর মুখ থেকে এই ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন সন্ত্রাসী উক্তি কীভাবে আসে! কোন সভ্য দেশের মানুষ এটা সহ্য করতে পারে না। আজকে সমগ্র দেশের মানুষ শেখ হাসিনাকে ধিক্কার জানাচ্ছেন।’

প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনার (প্রধানমন্ত্রী) এই মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চান জনগণের কাছে। অন্যথায় জনগণ আপনাকে ক্ষমা চাওয়ারও সুযোগ দেবে না। জনগণ টেনেহিঁচড়ে আপনাকে নামাবে ক্ষমতার তখতে তাউস থেকে। এখনো সময় আছে, খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন, তাঁকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার সুযোগ করে দেন।’

‘শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু করার বড়াই করছেন’—এমন মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘পদ্মা সেতু কারও একার না এবং আওয়ামী লীগের পৈতৃক সম্পত্তি নয়। জনগণের পকেটের টাকা থেকে যে ট্যাক্স কেটে নিয়েছেন, সেই টাকা দিয়েই পদ্মা সেতু নির্মিত হয়েছে। এখানে আপনারা যে দুর্নীতি করেছেন, তা সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে গেছে। জনগণ জানতে চায় যে, জনগণের পকেট থেকে কত টাকা আপনারা নিয়েছেন আর কত টাকা এই সেতুতে ব্যয় করেছেন, কত টাকা আপনারা নিজেদের পকেটে ভরেছেন।’

সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে। এখন আর ঘরে বসে থাকার সুযোগ নাই। দেশে থাকতে হলে আওয়ামী লীগকে বিদায় করা ছাড়া আর কোন বিকল্প নাই।’

মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান বলেন, ‘শেখ হাসিনার পতন সময়ের ব্যাপার মাত্র। হাসিনা ক্ষমতায় নাই, তার খোলসটা আছে। রাস্তা ছেড়ে যাবেন না। আঘাত আসলে এখন থেকে পাল্টা আঘাত করতে হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন


© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD