February 29, 2024, 7:14 pm

News Headline :
বিএনপি বিদেশিদের ওপর নির্ভর করে না: মঈন খান শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির প্রাথমিক সত্যতা মিলেছে : ডিএমপি ১০ দিনের সফরে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স যাচ্ছেন গণপূর্তমন্ত্রী ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে ছাত্রী নিপীড়নের প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ প্রযুক্তিনির্ভর অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘লাভ লাইন’-এ মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন তারা গাজায় অভিযানে ২৩৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত ড. ইউনূসকে আপিল করতে ৫০ কোটি টাকা দিতে হবে: হাইকোর্ট বিএনপির অবশিষ্ট কারাবন্দি নেতাকর্মীদের মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের ভোজ্য তেল ক্রয়-বিক্রয়ে অনিরাপদ ড্রাম ব্যবহার বন্ধে কর্মশালা

নির্বাচনের পর ঘুরে দাঁড়াবে অর্থনীতি

যমুনা নিউজ বিডি: বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার বলেছেন, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আর উচ্চ মূল্যস্ফীতি অর্থনীতিকে চাপে ফেলছে। তবে নির্বাচনের পর নতুন সরকার এলে ঘুরে দাঁড়াবে। নির্বাচনি অনিশ্চয়তা কেটে গেলে বাড়বে প্রবাসী আয়, বিদেশি বিনিয়োগ, বেসরকারি ঋণ এবং উন্নয়ন সহযোগীদের ঋণের ছাড়ও বাড়বে। গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেছেন।

কয়েক বছরের মধ্যে এবারও কৃষি উৎপাদন ভালো হয়েছে জানিয়ে আবদুর রউফ তালুকদার বলেন, শিল্প সূচক নিয়ে আমাদের হাতে যে তথ্য রয়েছে, ১৪ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। আমরা মনে করি এ বছর প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৫ এর ওপরে থাকবে।

গভর্নর বলেন, দুটি বিষয়ে আমরা চাপের মধ্যে আছি, একটি হলো মূল্যস্ফীতি আর আরেকটি বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। মূল্যস্ফীতি কমাতে সরকারের বাজেট ঘাটতি মেটানোর জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ফান্ডিং বন্ধ করে দিয়েছি। আমাদের পলিসি রেট বাড়িয়েছি। আইএমএফের হিসাব অনুযায়ী এই মুহূর্তে আমাদের রিজার্ভ আছে প্রায় ২০ বিলিয়ন ডলার। এদিকে, ইউএস ফেড : বলেছে, তারা ডিসেম্বর পর্যন্ত পলিসি রেট বাড়াবে না। যদি না বাড়ায় তাহলে আমরা ধরে নিতে পারি যে, ইউএস ফেডের রেট আর বাড়বে না। আমরা ইন্টারেস্ট রেট দিয়ে ডলার আনতে পারব। আবদুর রউফ তালুকদার বলেন, নির্বাচনের পরে যখন নতুন সরকার গঠন হবে, তখন মানুষের আস্থা ফিরে আসবে। এখন যারা রপ্তানি করছেন তারা একটু ধীর প্রক্রিয়ায় করছেন। যখন তারা দেখবেন বাজার স্থিতিশীল হয়ে গেছে, তখন তারা আরও দ্রুততার সঙ্গে করবেন। আমি মনে করি বাজার অবমূল্যায়িত হওয়ার আর কোনো কারণ নেই। এদিকে, দেশে আমদানি ব্যয়ের চেয়ে রপ্তানি ও প্রবাসী আয়ের যে ব্যবধান; তা কমে এলেও বিদেশি বিনিয়োগ, ঋণ কম ছাড় হওয়ার প্রবণতা কমেনি বলছেন গভর্নর। আবদুর রউফ তালুকদার বলেন, এখানে যে এক্সচেঞ্জ রেট ডিফারেনশিয়াল আর ইনফ্লেশন রেট ডিফারেনশিয়াল যদি নেগেটিভ হয় তাহলে একটা ক্যাপিটাল ফ্লাইট হয়। আমাদের যেহেতু ইন্টারেস্ট রেট কম ছিল এটা বাড়িয়েছি।

আমাদের টাকা কিছুটা ওভার ভ্যালু ছিল সেটা নমনীয় করে মার্কেট ভ্যালুর সমান করেছি। ব্যাংক খাতে সুশাসনের অভাব। তবে পদক্ষেপগুলো কাজে দিলে নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে খেলাপি ঋণ থেকে টাকা পাচার সবকিছুই।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD