June 16, 2024, 6:59 am

দাদন ব্যবসায়ী কর্তৃক জোর পূর্বক বাড়ি দখল বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টারঃ জোর পূর্বক বাড়ি দখল করার প্রতিবাদে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মোঃ আওয়াল সরদার। ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার সকালে বগুড়া প্রেসক্লাবে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,তার বড় ভাই মরহুম আব্দুস সামাদ আজাদ জীবদ্দশায় বগুড়া জেলা শহরের লতিফপুর এলাকায় ৭.২৫ শতাংশ সম্পত্তিতে চার ইউনিট বিশিষ্ট দোতলা বিল্ডিং নির্মাণ করে বসবাস করা কালে মারা যান । তিনি তার দুই ছেলেকে মোঃ গোলাম জাকারিয়া (রকি) ও মোঃ গোলাম কিবরিয়া (নাফিজ)’র অছিয়ত করে দেন। তার জীবদ্দশায় তার ভাইয়ের স্ত্রী মোছাঃ শাহানারা বেগম বে-আইনী ভাবে প্রভাবিত হয়ে কৌশলে আমার ভাবীর নামীয় বগুড়া সদরের ফুলদিঘী মৌজার ৭ শতক সম্পত্তি গোপনে তার দুই কন্যা মোছাঃ সাবিনা ইয়াসমিন রুমা ও মোছাঃ আয়শা আক্তারকে লিখে দেন। তার ভাই আব্দুস সামাদ আজাদ গত ২০২২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করার পর দুই ভাতিজা তার মাতার নিকট হতে ফুলদিঘী মৌজার উল্লেখিত ৭ শতক সম্পত্তি তার দুই মেয়ের লিখে নেয়ার বিষয়টি অবগত হন । তার দুই পুত্র রকি ও নাফিজ তাদের পরিবার নিয়ে সেই ৭ শতাংশ বাড়িতে বসবাস করে আসা অবস্থায় একই এলাকার দাদন ব্যবসায়ী উজ্জল হোসেন, মোছাঃ সাবিনা ইয়াসমিন (৩৮), আব্দুল জোব্বার (৩৮),আয়শা আক্তার (৩৬) সঙ্গবদ্ধ হয়ে আমার ভাতিজা রকি ও নাফিজকে তাদের পিতার অছিয়ত করা বাসা ও সম্পত্তি হতে উচ্ছেদ করে রকির স্ত্রী দিলরুবা দিয়াকে অন্যায়ভাবে মারপিট করে। গত ৭ সেপ্টেম্বর আত্মীয়- স্বজনের মধ্যস্থতায় বিরোধীয় বিষয়টি নিয়ে আপোষে বসে। আসামীরা আপোষ না মানলে গত ১৩ সেপ্টেম্বর রকির স্ত্রী দিলরুবা দিয়া আসামীগণের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। উল্লেখ্য আসামীরা রকি ও নাফিজকে দোতলা বাসা বে-আইনী ভাবে দখলে নিয়ে মহিলা নার্সদের ভাড়া দেয়। গত ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ভাড়াটিয়াদের কাছে থেকে ভাড়া আনতে গেলে কৌশলে তারা রকিকে দোতলা বিল্ডিং এর ছাদের উপরে নিয়ে যায়। আসামীরা হত্যার ভয়ভীতি দেখিয়ে নগদ ২০ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অস্বীকার করা মাত্রই আসামিরা চাকু দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে এবং লাঠি দিয়ে মাথার পিছনে আঘাত করে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দেয়। পরে রকিকে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । এ বিষয়ে থানায় গত ২১ সেপ্টেম্বর এজাহার করতে গেলে থানা আজও অভিযোগ লিপিবদ্ধ করেনি। তদন্তের দায়িত্বে থাকা পুলিশ আপোষ করার জন্য চাপ দেয়। উল্লেখ্য ১ নং আসামি উজ্জ্বল হোসেন একজন দাদন ব্যবসায়ী । একটি অননুমোদিত সঞ্চয়ী সমিতির মাধ্যমে সে সুদের ব্যবসা করে। তিনি লিখিত বক্তব্যে এই ঘটনায় সুবিচার নিশ্চিত করার জন্য উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন। সেই সঙ্গে তাদের পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করারও দাবি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD