February 26, 2024, 11:41 pm

এএফসি এশিয়ান কাপ ফাইনালে আজ জর্ডান -কাতার মুখোমুখি

যমুনা নিউজ বিডি: এএফসি এশিয়ান কাপের ফাইনালে উঠেই রেকর্ড গড়ে জর্ডান। প্রথমবারের মতো এই কৃতিত্ব দেখায় দলটি। এবার শিরোপা জিতে ইতিহাস আরও সমৃদ্ধ করতে উন্মুখ জর্ডান। ফাইনালে কাতারের মুখোমুখি হওয়ার আগে জর্ডান কোচ হোসেন আমুতার হুঙ্কার, ‘শিরোপা জিততে প্রস্তুত আমরা।’ ব্যাক টু ব্যাক শিরোপা জয়ের প্রত্যয়ে জর্ডানকে ‘ছাড় না দেয়ার’ হুমকি দিয়ে রেখেছেন কাতার কোচ টিনটিন মার্কিজ। আজ রাত ৯টায় লুসাইল স্টেডিয়ামে এএফসি এশিয়ান কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে কাতার ও জর্ডান। প্রথম শিরোপা জয়ের প্রত্যয় জানিয়ে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে জর্ডান কোচ হোসেন আমুতা বলেন, ‘সবাই শিরোপা জিততে মুখিয়ে আছে, দলের সকলেই লড়াইয়ে নামার জন্য প্রস্তুত। ছেলেরা প্রতিশ্রুত এবং শৃঙ্খলিত।’ জর্ডান কোচ আমুতা বলেন, ‘আমাদের সাফল্যের রহস্য একে অপরের প্রতি সহযোগী মনোভাব এবং নিরঙ্কুশ প্রচেষ্টা। ছেলেরা শুধু লড়াকু মানসিকতা নিয়ে পড়ে নেই, (প্রতিপক্ষকে হারানোর) নকশাও সাজিয়েছে।’ শিরোপা ক্ষুধার কথা জানিয়ে জর্ডান ডিফেন্ডার সালিম আল-আজালিন বলেন, ‘আমাদের হৃদয় এক, এক আত্মা, আমরা ঐক্যবদ্ধ।

ফাইনালে পৌঁছা সবার জন্য অনন্য অর্জন।’ নিজেদের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে আজালিন বলেন, ‘গোলবার থেকে আক্রমণভাগ- দলের সকলেই একটি বিশেষ উপায়ে প্রস্তুতি সেরেছি। শিরোপার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়ব আমরা।’ ২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো এএফসি এশিয়ান কাপ জেতে কাতার। শিরোপা ধরে রাখতে আরেকটি জয় প্রয়োজন কাতারের।

ফাইনালের আগে দলটির কোচ টিনটিন মার্কিজ বলেন, ‘আশা করি, ফাইনালে আমরা নিজেদের সেরা খেলাটা দেখাতে পারব।’ এনিয়ে মাত্র তৃতীয়বারের মতো এশিয়ান কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে দুই অ্যারাবিয়ান দল। ১৯৯৬ সালে সৌদি আরব বনাম সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যকার ফাইনালের পর সবশেষ ২০০৭ সালে সৌদি আরব বনাম ইরাক ফাইনাল হয়েছিল। দুই অ্যারাবিয়ান দল- জর্ডান ও কাতার ফাইনালে ওঠায় এটিকে ‘ভাইয়ে ভাইয়ে লড়াই’ বলা হচ্ছে। তবে খেলায় ‘ভাইকেও ছাড়’ না দেয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছেন কাতার কোচ মার্কিজ। তিনি বলেন, ‘ভাইয়ে ভাইয়ে লড়াই হলেও কেউ কাউকে ছাড় দেয় না।
আমি হয়তো আমার আপন ভাইয়ের সঙ্গে টেনিস খেলতে পছন্দ করব। তবে সেই ম্যাচটাও হবে জয়ের জন্যই।’ এশিয়ান কাপের সেমিফাইনাল পর্যন্ত স্কোয়াডে থাকা ২৬ খেলোয়াড়কেই মাঠে নামিয়েছেন কাতার কোচ মার্কিজ। ৩ গোলরক্ষকের সবাই খেলেছেন ন্যূনতম একটি করে ম্যাচ। কোচ মার্কিজ বলেন, ‘কিছু প্লেয়ার অন্যদের চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছে। তবে সবাই দলের সাফল্যে অবদান রেখেছি। এটা আমাদের দর্শন। যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ এএফসি এশিয়ান কাপের আগে টানা ব্যর্থতায় কাতারের প্রধান কোচের দায়িত্ব হারান কার্লোস কুইরোজ। পর্তুগিজ এই ম্যানেজারের স্থলাভিষিক্ত হন টিনটিন মার্কিজ। ৬২ বছর বয়সী এই স্প্যানিশ কোচের প্রশংসা করে কাতার অধিনায়ক হাসান আল-হেইদোস বলেন, ‘এক মাস আগেও কেউ ভাবেনি যে, আমরা ফাইনালে পৌঁছাতে পারি। কেউ ভাবেনি আমরা এমন (দুর্দান্ত) পারফরম্যান্স দেখাতে পারি।

কিন্তু এই (মার্কিজ) কোচের অধীনে… আমি মনে করি, এই পর্যায়ে আসার পেছনে দলের সবার প্রচেষ্টা এবং ঐক্যবদ্ধতা কাজে দিয়েছে।’ এশিয়ান কাপের ফাইনালে জর্ডানের বিপক্ষে কাতারই ফেভারিট। শক্তি-সামর্থ্যে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮৭তম স্থানে থাকা জর্ডানের চেয়ে অনেক এগিয়ে ৫৮তম স্থানে থাকা কাতার। আন্তর্জাতিক ফুটবলে এখন পর্যন্ত মোট ২২ বার দেখা হয়েছে দুই দলের। এতে ১২ জয় কাতারের। ৫টি জিতেছে জর্ডান। বাকি পাঁচটি ড্র। এর আগে কখনো এশিয়ান কাপের ফাইনাল না খেলা জর্ডানের মোকাবিলায় কাতারের অনুপ্রেরণার কারণ হতে পারে ২০১৯ আসরের শিরোপা জয়। তবে জর্ডানের আত্মবিশ্বাসের কারণ হতে পারে কাতারের বিপক্ষে তাদের শেষ ৫ ম্যাচের ফল। দুই দলের শেষ পাঁচ আন্তর্জাতিক ম্যাচে ২টি জয় জর্ডানের। একবার জিতেছে কাতার। অন্যটি ড্র।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD