May 27, 2024, 9:07 am

বগুড়ায় প্রতারণা মামলায় মেঘনা এগ্রোফিডের পরিচালক ও ম্যানেজার গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার: ডিলার নিয়োগের নাম করে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় মেঘনা এগ্রো ফিড মিলের পরিচালক আবু তাহের ওরফে বাদশা বিন তাহের এবং জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) বেলাল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বগুড়া সদর থানার এসআই মো: জাকির আল আহসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ঢাকায় রামপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। তাহের ও বেলাল ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি। তাদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ছিল।

পুলিশ সূত্র জানায়, গ্রেফতারকৃত মেঘনা এগ্রো ফিডের পরিচালক আবু তাহের বগুড়া শহরের নারুলী মধ্যপাড়া এলাকার মো: বাদশা মন্ডলের ছেলে। এছাড়া জিএম বেলাল হোসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর থানার হাজী বাড়ি নতুন পাড়ার কুনু মিয়ার ছেলে।

বগুড়া সদর থানার এসআই জাকির আল আহসান জানান, প্রতারক চক্রের সদস্য মেঘনা এগ্রো ফিডের পরিচালক আবু তাহের ও জি.এম বেলাল হোসেন বগুড়ায় বিভিন্ন ব্যক্তিকে লোভনীয় অফারের মাধ্যমে ডিলার নিয়োগ দেয়ার নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে বগুড়া থেকে অফিস গুটিয়ে নেয়।

এরপর স্থান পরিবর্তন করে অন্য জেলায় অফিস খুলে আবার সেই জেলার বিভিন্ন লোককে ডিলারশিপের নাম করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

এভাবে ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী, রাজশাহী, বরগুনা, খুলনা, ঝালকাঠি, গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অফিস খুলে তারা প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে ঢাকায় গা-ঢাকা দেয়। ঢাকাতেও তারা অফিস খুলে প্রতারণার জাল বিছায়।

তাদের উৎপাদিত ফিডের মধ্যে হ্যাচারি ও নার্সারি, ভাসমান ও ডুবন্ত ফিড, বয়লার, লেয়ার ও সোনালী ফিড ও মোটা তাজা, দুগ্ধ ও ক্যাটেল ফিড ইত্যাদি উল্লেখ করে আকর্ষনীয় প্রচারপত্রের মাধ্যমে অফার দিয়ে প্রলব্ধ করা হয়।

প্রতারক তাহের ও বেলালের বিরুদ্ধে ১৫টি মামলা হয়েছে। সর্বশেষ গত মাসেও ঢাকায় মিরপুর পল্লবী থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়। এর মধ্যে রাজশাহী এবং ঠাকুরগাঁ দুটি মামলায় আদালতে তাদের বিরুদ্ধে দুই বছর এবং ঠাকুরগাঁয়ে আদালতে তিনবছর সাজা দেয়া হয়েছে। আজ রোববার (১৪ জানুয়ারি) তাদের আদালতের মাধ্যমে বগুড়া কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD