March 1, 2024, 9:43 pm

News Headline :
ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের নির্বাচনে এম রায়হান সভাপতি, ফয়সাল সাধারণ সম্পাদক ইসলামী স্থাপত্য ও ঐতিহ্যের প্রতিনিধিত্ব করে দেশের যে ৫ মসজিদ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও বিকাশ ছাড়া গণতন্ত্র পূর্ণতা পাবে না : সমাজকল্যাণ মন্ত্রী বিদ্যুত ও গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বগুড়ায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী কে কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে মন্ত্রিসভায় নতুন ডাক পেলেন ৭ জন নন্দীগ্রামে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি হচ্ছে দই, সেই সাথে বেড়েছে হোটেলে খাবারের দাম শেরপুরে ৩টি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা জুমার পূর্বে চার রাকাত সুন্নত পড়া যে কারণে জরুরি গুগল নিয়ে এলো নতুন এআই ফিচার, ব্যবহার করবেন যেভাবে

বিএনপির সাবেক এমপি জিয়াউল হক মোল্লা’র কুশপুত্তলিকা দাহ

কাহালু প্রতিনিধি: বগুড়া-৪ আসন থেকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মনোনয়নপত্র উত্তোলন এবং জমা দিয়েছেন ওই আসন থেকে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে ৪ বারের নির্বাচিত এমপি ডা. জিয়াউল হক মোল্লা। বুধবার (২৯ নভেম্বর) তিনি কাহালু উপজেলা সহকারী রিটানিং কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা. মেরিনা আফরোজের নিকট মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এ ঘটনার পর থেকেই স্থানীয় বিএনপি’র নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তাকে জাতীয় বেঈমান আখ্যা দিয়ে এলাকায় অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। সন্ধ্যার পর কাহালু উপজেলার নারহট্ট ইউনিয়ন ও জামগ্রাম ইউনিয়ন এবং নন্দীগ্রাম পৌর শহরে একাধিক স্থানে দলীয় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা জিয়াউল হক মোল্লার কুশপুত্তলিকায় জুতা দিয়ে পেটানোর পর আগুন লাগিয়ে দেয়।

জানা গেছে, জিয়াউল হক মোল্লার গ্রামের বাড়ি কাহালু উপজেলার দেওগ্রামে। তিনি বগুড়া শহরের মালতিনগরে বসবাস করেন। তার পিতা আজিজুল হক মোল্লা বগুড়া-৪ আসনের বিএনপির সংসদ সদস্য ছিলেন। তার মৃত্যুর পর ১৯৯৪ সালে অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হয়ে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ডা. জিয়াউল হক মোল্লা। এরপর তিনি ১৯৯৬ সালের ৬ষ্ঠ ও ৭ম জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হয়ে তিনি নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের নির্বাচনেও বিএনপির প্রার্থী হয়ে ১ লাখ ১৪ হাজার ৮১৪ ভোট পেয়ে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন জিয়াউল হক মোল্লা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD