July 16, 2024, 8:38 am

আজও ক্ষতিপূরণ পায়নি তাজরীনে আহত ও নিহতদের পরিবার

সাভার প্রতিনিধিঃ ঢাকার উপকণ্ঠ সাভারের আশুলিয়ায় ইতিহাসের ভয়াবহ তাজরীন গার্মেন্টস অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১১বছর পূর্তিতে নিহত শ্রমিকদের স্মরণে পুড়ে যাওয়া কারখানার সামনে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন নিহত শ্রমিকদের পরিবার, আহত শ্রমিক, ও পুলিশসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন।

শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টায় আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরে তাজরীন ফ্যাশনসের প্রধান ফটকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান শিল্প-পুলিশ। এরপরেই শ্রদ্ধা জানান, ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স (ইউএফজিডব্লিউ) এর সাভার আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোঃ ইমন শিকদার, বাংলাদেশ গার্মেন্টস এন্ড শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর শেখ লালন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ঈসমাইল হোসেন ঠান্ডু, বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ তুহিন চৌধুরী, আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ কবির হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মোঃ মাহবুব আলম বাচ্চু, সাভার আশুলিয়া অঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আল মামুন বিপ্লবসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স (ইউএফজিডব্লিউ) এর সাভার আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি মোঃ ইমন শিকদার বলেন, তাজরীন ট্রাজেডি আজ ১১বছর পার হয়ে গেলেও এখনও এই ঘটনায় খুনি দেলোয়ার সহ জড়িতদেরকে উপযুক্ত শাস্তি হয়নি। তাই তাদেরকে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হোক। এছাড়া আহত ও নিহতদের পরিবারের অনেকেরা যথাযথ সাহায্য সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। তারা আজও দুর্বিষহ জীবন যাপন করছে। তাদের জন্য পূর্নবাসনসহ ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করার জন্য সরকার প্রধানের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ কবির হোসেন বলেন, তাজরীন গার্মেন্টসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার এক যুগ হলেও আহত শ্রমিক ও নিহতদের পরিবার ক্ষতিপূরণ পাইনি। অনেক ভাই-বোন অসুস্থ অবস্থায় বিনা চিকিৎসায় মারা গেছেন। এখনও অসুস্থতা নিয়ে অনেক শ্রমিক কষ্টে দিন পার করতেছে। এত বছরেও সরকার কিংবা বিজিএমইএ কেউই আমাদের খোঁজ রাখেনি। অবিলম্বে কারখানার মালিক দেলোয়ারের শাস্তিসহ তাদেরকে ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের দাবি জানাই।

শিল্প পুলিশের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সারোয়ার আলম বলেন, তাজরীন অগ্নিকান্ডের ঘটনা একটি বেদনাদায়ক ঘটনা। এই ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত রিপোর্ট বিজ্ঞ আদালতে জমা দেয়া হয়েছে। বিচারকাজ যাতে তরান্বিত হয় সেদিকেও আমরা নজর রাখছি। আমাদের সবরকমের প্রচেষ্টা থাকবে। এই ঘটনা আমাদের আঙ্গুল দিয়ে দিয়েছে, ইন্ডাস্ট্রি করার ক্ষেত্রে কোন বিষয় গুলোকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। আমরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ সেসব বিষয় খেয়াল রাখছি।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাজরীনে হতাহত শ্রমিকদের স্মরণে পুড়ে যাওয়া কারখানার সামনে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তাজরীন ফ্যাশন কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কারখানার ভিতরে আগুনে পুড়ে মারা যায় ১০১ জন, লাফিয়ে পড়ে ১০ জন। এ ঘটনায় মোট ১১৭ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন ২০০ জনেরও বেশি শ্রমিক। আহত হয়ে পঙ্গুত্ব জীবন যাপন করছেন বেশ কয়েকজন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD