February 29, 2024, 3:04 pm

News Headline :
বিএনপি বিদেশিদের ওপর নির্ভর করে না: মঈন খান শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির প্রাথমিক সত্যতা মিলেছে : ডিএমপি ১০ দিনের সফরে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স যাচ্ছেন গণপূর্তমন্ত্রী ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদের বিরুদ্ধে ছাত্রী নিপীড়নের প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ প্রযুক্তিনির্ভর অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ‘লাভ লাইন’-এ মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন তারা গাজায় অভিযানে ২৩৮ ইসরায়েলি সেনা নিহত ড. ইউনূসকে আপিল করতে ৫০ কোটি টাকা দিতে হবে: হাইকোর্ট বিএনপির অবশিষ্ট কারাবন্দি নেতাকর্মীদের মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের ভোজ্য তেল ক্রয়-বিক্রয়ে অনিরাপদ ড্রাম ব্যবহার বন্ধে কর্মশালা

কোন কোন উপসর্গ দেখলেই ডেঙ্গু টেস্ট করা জরুরি?

যমুনা নিউজ বিডিঃ দেশজুড়ে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব। বর্ষার শুরু থেকেই এর প্রাদুর্ভাব বেড়েছে। এতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। তাই এখন কারো জ্বর হলেই ঘরের সবাই দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন ডেঙ্গু ভেবে। ডেঙ্গু জ্বর একটি ভাইরাল সংক্রমণ, যা সংক্রমিত মশার কামড়ের মাধ্যমে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় জ্বর হলে তা ডেঙ্গুর লক্ষণ কি না তা বুঝতে আগে ব্লাড টেস্ট করতে হবে।

রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমেই সাধারণত কেউ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত কি না তা শনাক্ত করা হয়। তবে কোন কোন উপসর্গ দেখলে ডেঙ্গু পরীক্ষা করবেন, তা হয়তো অনেকেরই জানা নেই। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক-

১) ২-৭ দিনের জ্বর
২) সঙ্গে মাথার যন্ত্রণা
৩) গায়ে, হাতে-পায়ে ব্যথা
৪) দুর্বলতা
৫) শরীরে লালচে ফুসকুড়ি
৬) চোখের পেছনের ব্যথা ও যন্ত্রণা
৭) শরীরের কোনও অংশে রক্তক্ষরণ ইত্যাদি।

উপরের উপসর্গগুলো দেখলেই অবিলম্বে ডেঙ্গু টেস্ট করানো জরুরি। একই সঙ্গে যদি কোনো রোগীর জ্বরের সঙ্গেই শরীরের কোনো গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গে সমস্যা দেখা দেয়, তাহলে তাকেও অবিলম্বে ডেঙ্গি টেস্ট করতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন, দুদিনের বেশি উচ্চমাত্রায় জ্বর থাকলে ও উপরের অন্যান্য উপসর্গ না থাকলেও ডেঙ্গু টেস্ট করতে হব। চলুন জেনে নেওয়া যাক, কোন ক্ষেত্রে কোন টেস্ট করবেন-

জ্বরের প্রথম ৫ দিনের মধ্যে এনএস-১ এলাইজা ও জ্বর যদি ৫ দিনের বেশি থাকে, তাহলে আইজিএম এলাইজা। আর যদি রোগীর জ্বর আসার অন্য কোনো নিশ্চিত কারণ না থাকে, তাহলে সব জ্বরের রোগীকেই ম্যালেরিয়া টেস্ট করাতে হবে।

যেখানে ল্যাব টেকনিশিয়ান আছেন, সেখানে মাইক্রোস্কপি টেস্ট করাতে হবে। আর যদি ল্যাব টেকনিশিয়ান না থাকেন সেক্ষেত্রে র্যাপিড ডায়গনস্টিক কিট ব্যবহার করা যেতে পারে। এছাড়া রোগীর প্লেটলেট কাউন্ট ১০ হাজারের নীচে গেলে তাকে যত দ্রুত সম্ভব প্লেটলেট দিতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD