February 25, 2024, 8:07 am

নখে নখ ঘষার ৫ জাদুকরি উপকারিতা

যমুনা নিউজ বিডিঃ শুধু সাজগোজের কাজেই নখের প্রয়োজনীয়তা শেষ হয়ে যায় না, এর রয়েছে বেশ কিছু জাদুকরি গুণাগুণ। মৃত কোষের যে এত উপযোগিতা, তা জানলে অবাক হবেন। নখ ঘষা আসলে একটি ব্যায়াম, যার নাম বালায়াম। দুই হাত মুড়ে নখের সঙ্গে নখ ঘষলেই পাবেন অসাধারণ কিছু উপকার।

রইল নখ ঘষার ৫টি উপকারিতা-

নখ ঘষা এক ধরনের যোগাসন, যাতে নখের স্নায়ু উদ্দীপিত হয়ে মস্তিষ্ককে বার্তা পাঠায়। এর ফলে রক্ত চলাচল বাড়ে। আর হেয়ার ফলিকলগুলো শক্তিশালী হয়ে ওঠে।

নখে নখ ঘষলে পেশিগুলো ও স্নায়ুগুলো শিথিল হয়। জটগুলো ছাড়ে। ফলে অতিরিক্ত মানসিক চাপমুক্তিতে সাহায্য করে।

যোগা বিশেষজ্ঞ এবং পুষ্টিবিদ জুহি কাপুর বলেছেন, এই যোগাসনে মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। এর জেরে হেয়ার ফলিকল শক্তিশালী হয়ে ওঠে এবং চুল গজায় বেশি পরিমাণে।

বলা হয়, পাকা চুলের সমস্যা দেখা দিলে এই বালায়ামের সাহায্য নিলে উপকার পাওয়া যাবে। চুল পেকে যাওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

বালায়ামে শরীরে রক্ত সঞ্চালনের হার বাড়ে বলে হার্ট এবং ফুসফুসের কার্যক্ষমতা বাড়ে বলেও শোনা যায়।

বালায়ামের নিয়ম কী-

নখে নখ ঘষার ৫ জাদুকরি উপকারিতা

হাতের কাছে নিয়ে আসুন দু’টি হাত। হাত দু’টি মুড়ে ফেলুন। নখগুলো একে অপরের সামনে রাখুন। হালকা করে নখে নখ ঘষুন। দিনে ৫ থেকে ১৫ মিনিট এই যোগ করতে পারেন।

জুহি কাপুরের পরামর্শ অনুযায়ী, খালি পেটে অথবা খাবার পর অন্তত এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বালায়াম করা উচিত।

যাদের জন্য এই যোগাসন ক্ষতিকারক-

আপনার ত্বকে এবং নখে যদি সংক্রমণ হয়ে থাকে, তবে এই যোগাসন না করাই ভালো। এ ছাড়া উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থাকলে বালায়াম করবেন না।

অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন অথবা অ্যাঞ্জিওগ্রাফি অথবা অ্যাপেন্ডিসাইটিস অস্ত্রোপচার হয়ে থাকলে বালায়াম না করাই ভালো।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD