September 29, 2022, 9:03 am

News Headline :
বগুড়া জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত বগুড়ায় প্রকাশ্যে আ’লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা বুরকিনা ফাসোয় জঙ্গি হামলায় নিহত ১২ সারিয়াকান্দিতে চেয়ারম্যান প্রার্থী মকবুল হোসেনের পক্ষে মতবিনিময় দুপচাঁচিয়া পৌরসভায় ফ্রি জন্ম নিবন্ধন ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন বৃহস্পতিবার মাঠে গড়াচ্ছে জাতীয় যুব হকির ২৭তম আসর মান্নান আকন্দর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে ১৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ জনগণের মানববন্ধন সহ-শিক্ষা কার্যক্রম একটি প্রতিষ্ঠানকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যায়-এসপি সুদীপ নন্দীগ্রামে যাত্রী ছাউনিতে পড়ে থাকা সাবেক প্রধান শিক্ষকের পাশে ইউএনও শিফা নুসরাত লড়াই করেও বাংলাদেশের কাছে হোয়াইটওয়াশ আমিরাত

রবির বিরুদ্ধে সাবেক এমডির ২২৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ মামলা

যমুনা নিউজ বিডিঃ  মোবাইল ফোন অপারেটর রবির বিরুদ্ধে ২২৭ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা করেছেন সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাহতাব উদ্দিন আহমেদ। আজিয়াটা লিমিটেডের সাবেক গ্রুপ সিইও দাতো ইজাদিন ইদ্রিস, আজিয়াটার মালিকানাধীন বাংলাদেশের মোবাইল অপারেটর রবির বোর্ড চেয়াম্যান থায়াপান এস এস সাঙ্গারা পিলায়, আজিয়াটার গ্রুপ চিফ ফিন্যান্স অফিসার এবং রবির চিফ ফিন্যান্স অফিসারকে বিবাদী করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ঢাকার যুগ্ম জেলা জজ আদালতে এই মামলা করেন মাহতাব উদ্দিন আহমেদ। তিনি জানিয়েছেন, ২০২১ সালের আগস্টে রবি থেকে পদত্যাগের পর আইন লঙ্ঘন করে তার বিরুদ্ধে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। ঐ কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী তাকে ২০১৯ সালের একটি ক্রয়চুক্তিতে অনিয়মের জন্য অভিযুক্ত করা হয় এবং তার প্রাপ্য সার্ভিস বেনিফিট পাবেন না বলে জানানো হয়। এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেই তিনি মামলা করেছেন। তিনি মালয়েশিয়ার আদালতেও একটি মামলা করবেন বলে জানান। আজিয়াটার বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণের এ মামলা বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ খাতে বড় চমকের জন্ম দিয়েছে। কারণ মাহতাব উদ্দিন আহমেদ ছিলেন আন্তর্জাতিক কোনো টেলিকম কোম্পানির প্রথম বাংলাদেশি এমডি।

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে রবির হেড অব করপোরেট অ্যাফেয়ার্স সাহেদ আলম ইত্তেফাককে বলেন, মামলার বিষয়টি আমরা গণমাধ্যমের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। আদালত থেকে কাগজপত্র পেলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

মামলার বিবরণে বলা হয়, মাহতাব উদ্দিন আহমেদ রবি থেকে পদত্যাগের পর তার বিরুদ্ধে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি আইনসম্মত না হলেও ঐ কমিটির সামনে তিনি হাজির হন নিজের দায়িত্ববোধ থেকে। পরবর্তী সময়ে তদন্ত কমিটিতে রবির বোর্ড অব চেয়ারম্যানকেও বেআইনিভাবে সদস্য করা হয়। এরপর ঐ কমিটি ২০১৮-১৯ সালে একটি ক্রয়চুক্তিতে অনিয়মের অভিযোগ আনে মাহতাব উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে। একই সঙ্গে তাকে জানিয়ে দেওয়া হয়, তিনি কোম্পানির কাছ থেকে অবসরকালীন ভাতা ও প্রাপ্য পাবেন না। এ সিদ্ধান্ত বেআইনি উল্লেখ করেই মামলাটি করেছেন মাহাতাব উদ্দিন।

জানতে চাইলে মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে, মামলাটি আমাকে নিরুপায় হয়ে করতে হয়েছে। কারণ কোম্পানির স্বার্থসংশ্লিষ্ট কিছু বিষয়ের মতবিরোধকে আজিয়াটার সাবেক গ্রুপ সিইও দাতো ইজাদিন ইদ্রিস ব্যক্তিগত বিরোধের পর্যায়ে নিয়ে যান এবং আমার বেতনের ক্ষেত্রেও আপত্তি তোলেন। ইজাদিন ইদ্রিসকে সর্বোতভাবে সমর্থন করেছেন রবির বোর্ড চেয়ারম্যান, যিনি রবি ও আজিয়াটার মধ্যে নানা দ্বন্দ্বের জন্ম দিয়েছেন। তদন্ত কমিটির অভিযোগ সম্পর্কে মাহতাব উদ্দিন বলেন, ঐ অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, সেটা আজিয়াটাই প্রমাণ করেছে। কারণ ২০১৮-১৯ সালে অনিয়ম হলে তার সংশোধন ২০২১ সালের বার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদনে অন্তর্ভুক্ত হতো। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, ২০১৯ সালের প্রতিবেদনে যে আর্থিক তথ্য নিয়ে তারা অভিযোগ করেছেন, ২০২১ সালের বার্ষিক প্রতিবেদনে তার সংশোধন করা হয়নি। এটিই প্রমাণ করে তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটির আনা অভিযোগ আদৌ সত্য নয়।

সূত্র জানায়, ঐ তদন্ত কমিটি নিয়েও প্রায় এক বছর ধরে রবির অভ্যন্তরে বিতর্ক চলেছে। প্রথমে রবি বোর্ডের দুজন স্বাধীন সদস্য এবং রবির কর্মকর্তাদের মধ্য থেকে দুজনকে নিয়ে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। কিন্তু তদন্ত চলাকালে দুজন স্বাধীন সদস্য কমিটি থেকে পদত্যাগ করেন। তারা ২০১৯ সালের ঐ ক্রয়চুক্তিতে অনিয়মের অভিযোগ সমর্থন করেননি। তাদের মত ছিল, কোনো অনিয়ম না হলেও পদ্ধতিগত একটি বিষয়কে অনিময় হিসেবে চালানো হচ্ছে। পরে রবির বোর্ড চেয়ারম্যানকে তদন্ত কমিটির সদস্য করা হয়। রীতি অনুযায়ী বোর্ড চেয়ারম্যান তদন্ত কমিটির সদস্য হতে পারেন না। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে মাহতাব উদ্দিন আহমেদের সরাসরি রবির সাবেক গ্রুপ সিইওর কট্টর সমর্থক বলে অভিযোগ ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD