August 14, 2022, 7:15 am

৪ বছরের শিশুর গলায় ছুরি ধরে মাকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

যমুনা নিউজ বিডিঃ নোয়াখালীতে ৪ বছরের শিশুর গলায় ছুরি ধরে হত্যার ভয় দেখিয়ে তার মাকে (২৬) ধর্ষণ ও অশ্লীল ভিডিও ধারণ করার মামলায় মো. কালাম ওরফে কালা মিয়া (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-১১ এর সদস্যরা। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাতে সদর উপজেলার সোনাপুর জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন আল আকসা রেস্তোরাঁর সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

এ সময় অভিযুক্ত যুবকের কাছ থেকে ভিকটিমের আপত্তিকর ভিডিও সম্বলিত ১টি মোবাইল, ২টি সিম কার্ড, ১টি মেমোরি কার্ড, ভিকটিমের ছবির স্ক্রিনশট ও নগদ ৪১৫ টাকা উদ্ধার করা হয়।গ্রেপ্তার মো. কালাম ওরফে কালা মিয়া (৩০) উপজেলার নোয়াখালী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম করিমপুর গ্রামের মৃত নুরুল আমিনের ছেলে। র‍্যাব জানায়, ভুক্তভোগী ওই নারী (২৬) এক সৌদিপ্রবাসীর স্ত্রী। স্বামী সৌদিপ্রবাসী হওয়ায় বাবার বাড়িতে ঘর করে ছোট ২ ছেলেকে নিয়ে সেখানে বসবাস করে আসছেন। কালাম ওই নারীকে বিয়ের আগে থেকে প্রেমের প্রস্তাবসহ কুপ্রস্তাব দিতেন। বিয়ের পর ভুক্তভোগীর স্বামী প্রবাসে চলে গেলে কালাম রাস্তা-ঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে ভিকটিমকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে কুপ্রস্তাব দিতেন। গত ২৬ জুন রাত ১০টার দিকে খাবার শেষে ছোট ছেলেকে ঘুম পাড়িয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য ঘরের বাইরে টয়লেটে যান ভুক্তভোগী ওই নারী।

এই সুযোগে কালাম ওই নারীর অগোচরে তার ঘরে প্রবেশ করে খাটের নীচে লুকিয়ে থাকেন। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ শরীরে মানুষের হাতের স্পর্শ পেয়ে ভুক্তভোগী ওই নারীর ঘুম ভেঙে যায়। পরে বিদ্যুতের আলোতে ওই তিনি কালামকে দেখতে পান।র‍্যাব আরও জানায়, ভুক্তভোগী ওই নারী ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় কালাম তার আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি ধারণ করে। পরবর্তীতে কালাম হাতে থাকা ১টি ছোরা ভিকটিমের ছোট ছেলের গলায় ধরে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তাকে ধর্ষণ করেন। ঘটনার পর থেকে কালাম ভুক্তভোগী ওই নারী ও তার সৌদিপ্রবাসী স্বামীকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং দাবিকৃত টাকা না দিলে ভুক্তভোগীর আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী সুধারাম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ও পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেন।

বুধবার (৬ জুলাই) দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১১, সিপিসি-৩ নোয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শামীম হোসেন। তিনি বলেন, আসামি কালা মিয়াকে জব্দকৃত আলামতসহ সুধারাম মডেল থানার মাধ্যমে আজ বিচারিক আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD