August 10, 2022, 8:26 pm

সারিয়াকান্দিতে আবারো বাড়ছে যমুনার পানি

সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর পানি আবারও বাড়তে শুরু করেছে। পানি বাড়ার সংবাদে যমুনা নদী এলাকার বন্যার্তরা আবারো শঙ্কিত হয়ে পড়েছে। প্রথম দফার বন্যায় এখনো ঠিকঠাক ঘরে উঠতে পারেনি অনেকেই। বাধে আশ্রয় নিয়ে আছে প্রায় আট শতাধিক পরিবার। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা বলছেন, পানি আরো এক দফা বাড়তে পারে।

জানা যায়, গত ১৭ জুন শুক্রবার বিকাল ৬ টায় যমুনা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে। পর্যায়ক্রমে ২১ জুন মঙ্গলবার যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার সর্বোচ্চ ৬৪ সে. মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এতে করে বন্যা সৃষ্টি হয়ে ৮৪টি গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে যায়। প্রায় দেড় লাখ মানুষ বন্যার শিকার হন। ২২ জুুন থেকে বন্যার পানি কমতে থাকে। কয়েকদিন পানি কমে ২৮ জুন পর্যন্ত যমুনার পানি বিপদসীমার ৭৬ সে.মি. নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়। এরপর ২৯ জুন সকাল হতে পানি আবারো বাড়তে থাকে। ফলে সারাদিনে পানি বেড়ে বিপদসীমার ৬৭ সে. মি. নীচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর পানির উচ্চতা ছিল ১৬.২৮ মি. যা বিপদসীমার ৪২ সে. মি. নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে পানি বাড়তে শুরু করায় আবারো দুশ্চিন্তায় পরেছে উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকার মানুষ। গত কয়েকদিন আগে তারা বাড়িঘরের যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেঁড়িবাধে আশ্রয় নিয়েছিলেন। পানি নেমে যাওয়ায় কিছু পরিবার জিনিসপত্র নিয়ে ঘরে এসেছিলেন। পানি বৃদ্ধির খবরে তারা আবারো দুশ্চিন্তায় পরেছেন। এভাবে পানি বাড়তে থাকলে পুনরায় আবারো ঘরের জিনিসপত্র এবং গবাদিপশু নিয়ে উঁচু কোথাও আশ্রয় নেওয়ার কথা ভাবছে।

উপজেলার বড় কুতুবপুর পূর্ব পাড়ার মজনু শাহ এর স্ত্রী সীমা খাতুন জানান, কয়েকদিনের আগে পানি উঠে ঘরবাড়ি ডুবে গিয়েছিল। পানি কমার পর কিছু কিছু মালপত্র ঘরে নেওয়া হয়েছে। এদিকে আবারো পানি বাড়তে শুরু করেছে। পানি বেড়ে যদি বন্যা দেখা দেয় তাহলে আবারো বাঁধে আশ্রয় নিতে হবে।

বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান বলেন, যমুনা নদীতে আবারো পানি বাড়ছে। গত কয়েক বছর থেকে যাচ্ছে যে নদীতে পানি কমার পর আবারো বেড়ে থাকে। পানি বাড়লেও এখন পর্যন্ত বিপদসীমার নিচ দিয়েই প্রবাহিত হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD