বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন

News Headline :
মিলনের সুস্থতা কামনা করে বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের বিবৃতি বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবীতে বগুড়ার কাগইলে মশাল মিছিল বুড়িচংয়ে এক ইউনিভার্সিটির ছাত্রের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা  সকল নেতাকর্মীর দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে চলা উচিত- মজিবর রহমান মজনু বগুড়া আ. হক কলেজের শিক্ষক পরিষদের নির্বাচনে জয়ী হলেন যারা নন্দীগ্রামে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা বগুড়া জেলা মোটর মালিক গ্রুপের ৭শ’ সদস্যর মাঝে আর্থিক অনুদান প্রদান বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি রফিক ভূঁইয়ার স্মরণ সভা প্রথম স্থান অর্জন গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটের কাল থেকে পলিথিনমুক্ত হচ্ছে চট্টগ্রামের তিন কাঁচাবাজার

ধসে পড়া সংযোগ সড়কটি সংস্কার হয়নি, নড়বড়ে সাঁকো দিয়ে চলাচল

শেরপুর প্রতিনিধিঃ শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার হাতিবান্দা ইউপির ঘাগড়া প্রধানপাড়া এলাকায় ধসে পড়া কাঁচা সংযোগ সড়কটি তিন বছরেও সংস্কার করা হয়নি। পাহাড়ি ঢলের পানিতে ধসে যাওয়া কাঁচা সংযোগ সড়কটির ওপর এলাকাবাসীর উদ্যোগে বাঁশ দিয়ে সাঁকো নির্মাণ করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা ভেঙে যাওয়া বাঁশের নড়বড়ে সাঁকো দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। দীর্ঘদিন ধরে এ অবস্থা থাকলেও কর্তৃপক্ষ কাঁচা সংযোগ সড়কটি সংস্কারের কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। যেকোন সময় সাঁকোটি ভেঙে পড়ে বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে এলাকাবাসী শঙ্কা প্রকাশ করছেন।

স্থানীয়রা জানান, গত ২০১৮ সালে উপজেলার হাতিবান্দা ইউনিয়নের পাগলারমুখ এলাকায় মালিঝি নদীর বাঁধ ভেঙে বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ী ঢলের পানি প্রবেশ করে। এতে ওই ইউনিয়নের ঘাগড়া প্রধানপাড়া এলাকায় মালিঝি নদীর শাখা খালের ওপর নির্মিত বক্স কালভার্টের পূর্ব পাশের কাঁচা সংযোগ সড়কটির প্রায় ৫০ ফুট সড়ক ধসে পড়ে। এর পর থেকেই এখনও পড়ে আছে সে অবস্থায়। এতে হাতিবান্দা, ঘাগড়া প্রধানপাড়া, কামারপাড়া গ্রামের মানুষ চলাচলে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

ঘাগড়া কামারপাড়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আতিকুর রহমান বলেন, এ বক্স কালভাটের সংযোগ সড়ক না থাকায় বাঁশের সাঁকো দিয়ে নির্মিত নড়েবড়ে সাঁকো দিয়ে চলাচল করতে হয়। এদিক দিয়ে চলাচর করার সময় মনে হয় এবুঝি শিক্ষা উপকরণসহ পানিতে পড়ে যায়।

ঘাগড়া প্রধানপাড়া গ্রামের কৃষক হাশেম আলী বলেন, তিন বছর ধরে সড়কটি ভেঙে আছে। ফলে তাদের উৎপাদিত ফসল ও কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে প্রচুর হিমশিম খেতে হয়। তাই এখানে দ্রæত সময়ের মধ্যে সংযোগ সড়কটি সংস্কারের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান তিনি।

ঘাগড়া কামারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোয়ারা বেগম বলেন, এ খালের ওই পাড় থেকে আমার বিদ্যালয়ে শতাধিক শিক্ষার্থী চলাচল করে। সংযোগ সড়কপি ধসে যাওয়ায় ব্যাপক দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তিনি ওই স্থানে দ্রুত মাটি ভরাটের দাবি জানান।

হাতিবান্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) মো. আকবর আলী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংযোগ সড়ক ধসে পড়ে থাকলেও কতৃপক্ষ সংস্কারের কোন পদক্ষেপ নেয়নি।

স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপজেলা প্রকৌশলী মো. মোজাম্মেল বলেন, বিষয়টি জানা ছিল না। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইউএনও ফারুক আল মাসুদ বলেন বলেন, এলাকাবাসীর দুর্ভোগ নিরসনে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রæত সময়ের মধ্যে সড়কটি সংস্কারের জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবেন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com