মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৬:০৯ পূর্বাহ্ন

কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের শ্রেষ্ঠ আয়াত

যমুনা নিউজ বিডিঃ যদি প্রশ্ন করা হয়- কৃতজ্ঞাতা জ্ঞাপন করবো কার? তবে উত্তর আসবে- মহান আল্লাহর। আল্লাহ তাআলা নিজেই প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে তার কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের নির্দেশ দিয়েছেন এভাবে-

‘হে মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনার প্রতিপালকের সমীপে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন।’

কীভাবে পরিপূর্ণ ভক্তি-শ্রদ্ধাসহ তার প্রশংসা ও শ্রেষ্ঠত্ব বর্ণনা করতে হবে সে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন স্বয়ং আল্লাহ। আল্লাহ তাআলা বলেন-

قُلِ اللَّهُمَّ مَالِكَ الْمُلْكِ تُؤْتِي الْمُلْكَ مَن تَشَاء وَتَنزِعُ الْمُلْكَ مِمَّن تَشَاء وَتُعِزُّ مَن تَشَاء وَتُذِلُّ مَن تَشَاء بِيَدِكَ الْخَيْرُ إِنَّكَ عَلَىَ كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

উচ্চারণ : ‘কুললিল্লাহুম্মা মালিকাল মুলকি তুতিল মুলকা মাংতাশাউ ওয়া তাংযিউল মুলকা মিম্মাংতাশাউ ওয়া তুইয্‌যু মাংতাশাউ ওয়া তুজিল্লু মাংতাশাউ বিইয়াদিকাল খাইরু ইন্নাকা আলা কুল্লি শাইয়িং ক্বাদির।’

অর্থ : ‘(হে রাসুল!) আপনি বলুন, হে আল্লাহ! তুমিই সার্বভৌম শক্তির অধিকারী। তুমি যাকে ইচ্ছা রাজ্য দান কর এবং যার কাছ থেকে ইচ্ছা রাজ্য ছিনিয়ে নাও এবং যাকে ইচ্ছা সম্মান দান কর আর যাকে ইচ্ছা অপমানে পতিত কর। তোমারই হাতে রয়েছে যাবতীয় কল্যাণ। নিশ্চয়ই তুমি সর্ব বিষয়ে ক্ষমতাশীল।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ২৬)

আয়াতটির অর্থ থেকেই বোঝা যায় যে, আল্লাহর প্রশংসা ও পবিত্র বর্ণনায় এ আয়াতে বিকল্প নেই। এটি মহান আল্লাহর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের শ্রেষ্ঠ আয়াত । আল্লাহর শুকরিয়ায় মুমিন মুসলমানের জন্য শিক্ষণীয় আয়াতও এটি।

কোরআনুল কারিমের সুরা আল-ইমরানের এ আয়াতেই আল্লাহ তাআলা তার কৃতজ্ঞতা প্রকাশে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামসহ ও উম্মতে মুহাম্মাদিকে এ আয়াতের মাধ্যমে নির্দেশ দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, কোরআনুল কারিমের এ আয়াতটি পঞ্চম হিজরিতে নাজিল হয়। এরপর মাত্র এক যুগেই তদানীন্তন পৃথিবীর এক চতুর্থাংশ মুসলমানদের শাসনে চলে আসে। এ সীমানায় ইসলামের পতাকা উড়তে থাকে। আর এর মাধ্যমেই তার ক্ষমতার বহিঃপ্রকাশ ঘটে। এটি ছিল মহান আল্লাহর কৃতজ্ঞতার ফলস। কেননা তিনিই তো সেই মহান সত্ত্বা; যিনি সার্বভৌম ক্ষমতার অধিপতি! যাকে ইচ্ছা তিনি ক্ষমতা দান কর এবং যার কাছ থেকে ইচ্ছা তিনি ক্ষমতা ছিনিয়ে নেন।’

সুতরাং মুমিন মুসলমানের উচিত, কোরআনের মর্যাদাপূর্ণ এ আয়াতের মাধ্যমে আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করা। আল্লাহর শ্রেষ্ঠত্ব ও ক্ষমতায় পরিপূর্ণ বিশ্বাস স্থাপন করা। কারণ তিনিই সব কিছুর উপর শ্রেষ্ঠ ক্ষমতাবান।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার প্রতিটি কাজে এ আয়াত দ্বারা শুকরিয়া আদায় করার পাশাপাশি আল্লাহর ক্ষমতায় পরিপূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করার তাওফিক দান করুন। দুনিয়া ও পরকালের নেয়ামত লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com