রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

বগুড়ায় বিয়ের প্রলোভনে গৃহবধূর সঙ্গে প্রতারণা করায় যুবক গ্রেফতার

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ বগুড়ায় বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিও হাতিয়ে নিয়ে ব্লাকমেইল (প্রতারণা) করার অভিযোগে মাহমুদ মুন্না (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)।

সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে রোববার রাতে বগুড়ার শেরপুর উপজেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি স্মার্টফোন, দুটি সিম ও ১৬জিবি এসডি কার্ড জব্দ করা হয়।

মুন্না শেরপুর উপজেলার পূণ্যাতলা শ্রীরামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম জমশের আলী।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বগুড়া ডিবি পুলিশের ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ।

ডিবি পুলিশ জানায়, মুন্না শেরপুর উপজেলার একটি মোবাইল টেলিকমের দোকানে ওই গৃহবধূকে প্রথম দেখতে পান। প্রথম দেখাতেই গৃহবধূকে ভালো লেগে যায় তার। পরে কৌশলে তার (গৃহবধূর) ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠান মুন্না। গৃহবধূ রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করার পর তারা নিয়মিত ম্যাসেঞ্জারে কথা বলতেন। এতে ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। একপর্যায়ে মুন্না গৃহবধূর কাছে অশ্লীল ছবি ও ভিডিও চান। কিন্তু তিনি (গৃহবধূ) প্রথমদিকে দিতে রাজি হননি। ফলে তাদের মধ্যে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে মুন্না বিয়ের প্রলোভন দিয়ে গৃহবধূর আপত্তিকর অবস্থায় ভিডিও কলে আসতে বলেন। তার কথা অনুযায়ী গৃহবধূ ওই অবস্থাতেই ভিডিও কলে আসেন। এ সময় মুন্না গৃহবধুর আপত্তিকর ভিডিও রেকর্ড করে রাখেন। পরবর্তীতে বিভিন্ন কারণে ওই গৃহবধূর সঙ্গে মুন্নার সম্পর্কের অবনতি হয়। এতে মুন্না ক্ষিপ্ত হয়ে যান। তিনি আপত্তিকর ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে অনৈতিক প্রস্তাব দেন। এমন পরিস্থিতিতে কোনো উপায় না পেয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ।

জেলা ডিবি পুলিশের ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ বলেন, গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে মুন্নাকে গ্রেফতার করা হয়। মুন্নার মুঠোফোন বিশ্লেষনে একাধিক মেয়ের কাছ থেকে আপত্তিকর ছবি সংগ্রহের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তার বিরুদ্ধে বগুড়া শেরপুর থানায় পর্ণগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com