বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:১৬ অপরাহ্ন

সংবিধান অনুযায়ী দলীয় সরকারের অধীনেই আগামী নির্বাচন : তথ্যমন্ত্রী

যমুনা নিউজ বিডি:  তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, নির্বাচন কমিশন কোনো দলের অধীনে নয়, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন। স্বাধীনভাবেই তারা নির্বাচন পরিচালনা করে থাকে। সংবিধান অনুযায়ী আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনেই আগামী সংসদ নির্বাচন হবে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার ব্রজগোপাল টাউন হলে সাবেক এমপি মরহুম অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইসলামের ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাড়ে ১৩ বছরে বাংলাদেশকে বদলে দিয়েছেন। উন্নয়নের ছোঁয়া শুধু শহরে নয় গ্রামে পৌঁছে গেছে। গ্রামগুলোও এখন শহরে পরিণত হয়েছে। গ্রামে এখন আর কাউকে খালি পায়ে দেখা যায় না। গ্রামের মানুষ এখন আর বাসি পান্তা ভাত খায় না। এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার বদলে দেওয়া বাংলাদেশ।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, গ্রামে বসে এখন সারা বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়। মোবাইলের মাধ্যমে ঘরে বসেই টাকা লেনদেন করতে পারে সাধারণ মানুষ। ঘরে বসেই স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন করতে পারছে মানুষ। এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ।

বিএনপির সিরিজ বৈঠকের কথা উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তারা (বিএনপি) বলে আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবে না, কিন্তু কোনো সরকারের অধীনে কখনই নির্বাচন হয় না। নির্বাচন হয় নির্বাচন কমিশনের অধীনে। রাত ১২টার যারা টেলিভিশনে বড় বড় কথা বলে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের স্বপ্ন দেখে সেটি কোনো দিন বাস্তবায়ন হবে না। সংবিধান অনুযায়ী আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনেই আগামী সংসদ নির্বাচন হবে।

তিনি বলে, নির্বাচন কমিশন কোনো দলের অধীনে নয়, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন। স্বাধীনভাবেই তারা নির্বাচন পরিচালনা করে থাকে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নেতারা বলেছিল পদ্মা সেতু হবে না, কিন্তু শেখ হাসিনার সরকার সেই পদ্মা সেতু বানিয়ে দেখিয়েছে। আমি সেই দিনের অপেক্ষায় আছি যেদিন বিএনপি নেতারা এই পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে যাতায়াত করবে।

তিনি আরও বলেন, চরফ্যাশন উপজেলার প্রকৃতিক সৌন্দর্য দেখে আমি মুগ্ধ। এখানে সারাদেশ থেকে পর্যটকরা আসেন। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মত চরফ্যাশনেও উন্নয়ন হয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ হওয়ার কারণে সব কিছুই এখন হাতের নাগালে। এখন সুদূর কুকরি-মুকরি থেকেও অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন করা যায়। কৃষকরা ক্ষেতে বসেই কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে সমাধান পাচ্ছেন।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। এ সময় ভোলার জেলা প্রশাসক মো. তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী, পুলিশ সুপার সরকার মুহাম্মদ কায়সার, জেলা তথ্য কর্মকর্তা নুরুল আমিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-নোমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com