শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৮ অপরাহ্ন

শিবগঞ্জে বজ্রপাতে মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে ১৮ জন, আহত ১২

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নারায়নপুর থেকে নৌকাযোগে বরযাত্রী নিয়ে বৌভাতে যাওয়ার সময় পার্শ্ববর্তী শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের ধুলাউড়ির নয় রশিয়া ঘাট এলাকার পদ্মা নদীতে বজ্রপাতে ৫ জন মহিলাসহ ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন নারী ও শিশুসহ আরো ১২জন। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পদ্মা নদীর দক্ষিণপাকা ঘাটে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ও আহতরা এ সময় একটি ইঞ্জিন চালিত নৌকায় নদী পার হচ্ছিলেন। নৌকায় ৫০ জন যাত্রী ছিলেন বলে আহতদের একজন নিশ্চিত করেন।

নিহতরা হলো- সূর্য নারায়নপুর এলাকার মহারাজনগর ডাইলপাড়ার মোস্তফার ছেলে পাতু (৪৫), কালুর ছেলে তালহা (৪৫), টিপুর স্ত্রী বেলি (৩০), রফিকুলের ছেলে বাবুল (২৩), শাহালাল ওরফে বাবুর স্ত্রী মৌসুমি (২৫), মৃত জামালের স্ত্রী লেচন (৪৫), তফজুলের ছেলে সাইদুর (৩৮), স্ত্রী জামিলা (৫৫), ধুলুর ছেলে সজিব (১৭), সাদিকুলের স্ত্রী টকি (৩০) এবং চরবাগডাঙ্গা এলাকার মৃত সাত্তারের ছেলে মহবুল (৩২)।

আহতরা হলো- সূর্য নারায়নপুর এলাকার মহারাজনগর ডাইলপাড়ার তফজুলের ছেলে ওবাইদুর (২৭), বাসিরের মেয়ে ময়না (১৬), ছেলে মাহিন (৭), আলাউদ্দিনের ছেলে মিনহাজুল (৯), বাবুলের মেয়ে তোহরা (১৬), ইমরানের ছেলে শাহালাল (২৮), শাহালালের ছেলে মোমিন (৫), তামিম (৪), জীবনের স্ত্রী শিরিন (২০), গোলাপের ছেলে আল আমিন (২০), মৃত জামালের ছেলে আবর (৯) এবং ওবাইদুরের স্ত্রী রিতা (২৫)।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের সূর্য নারায়নপুর গ্রামের পাতুর ছেলে মামুন দিন কয়েক আগে বিয়ে করে আজ বুধবার দুপুরে বৌভাত অনুষ্ঠানে পার্শ্ববর্তী গ্রাম জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা যাচ্ছিল।
এমন সময় পাঁকা ঘাটে পৌছার পরপরই বৃষ্টি শুরু হলে তারা নদীর পাড়ে অবস্থিত ইজারারের ছোট ছাউনি ঘরে আশ্রয় নেয়। এমন সময় বৃষ্টির সাথে বজ্রপাত ঘটলে ঘটনাস্থলেই বরের বাবা-মাসহ ১১ জন মারা যান। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে ৭টি মরদেহ উদ্ধার করে ও ১৯ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। এর মধ্যে পথেই মারা যান আরো ৭জন।

এদিকে জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল তত্ত্বাবধায়ক ডা. মমিনুর হক জানান, ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা যাদের আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে এসেছেন তাদের মধ্যে মারাত্মক গুরুতর আহত আরো ৭জন মারা যান। আর তাদের মধ্যে ২ জনের অবস্থা গুরুতর এবং বাকিরা শংকামুক্ত। তবে একজন শিশুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

তবে ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক সাবের আলী জানান, ফায়ার সার্ভিস ১৪টি মরদেহ উদ্ধার করেছে এবং বাকি কয়েকজনের লাশ তাদের আত্মীয়-স্বজন আগেই নিয়ে চলে গেছে।

এদিকে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব-আল-রাব্বী বিকেল সাড়ে ৪টায় নিহতের সংখ্যা ১৮ জন বলে জানান।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com