সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

বগুড়ায় সেনাবাহিনী ও বিজিবি টহল

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে ১লা জুলাই থেকে সারাদেশের ন্যায় বগুড়াতেও সাত দিনের সর্বাত্বক কঠোর বিধি নিষেদ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই বিধি নিষেধ বাস্তবায়নে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা কাজ রয়েছেন। সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যে শহরে যানবাহ তেমন চোখে না পড়লেও ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটর সাইকেল, অ্যাম্বুলেন্স, রিকশা ছাড়া তেমন যাত্রী বাহি পরিবহন নেই সড়কে। এছাড়া ফাঁকা রাস্তায় গাড়ি নিয়ে টহল দিতে দেখা গেছে বিজিবি ও সেনাবাহিনী সদস্যদেরকে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের রাস্তায় বের হওয়া লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেখা গেছে। রিকশার আরোহীদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেখা গেছে। এছাড়া শহরের মেইন পয়েন্টগুলোতে ফাঁকা থাকলেও ষ্টেশন রোড ফলপট্টি , উপশহর, হাকিড় মোড়, নামাজগড়, চেলোপাড়া, বউবাজার, রহমাননগর, জহুরুলনগর, মালতিণগর,কলোনী, খান্দার, ফুলতলা সহ বিভিন্ন অলিগলিতে চায়ের দোকান এবং অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকানের সামনে মানুষের জটলা দেখা গেছে।

এদিকে, সর্বাত্মক বিধি নিষেধ বা লক ডাউন এর প্রথম দিন সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য বগুড়ার জেলা প্রশাসক মোঃ জিয়াউল হক এবং পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় অবস্থান নেন। তারা প্রায় ৩০ মিনিট অবস্থানকালে কঠোর বিধিনিষেধ বা লকডাউন কার্যকরের পদ্ধতি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন।
বিকেলে শহরের সাতমাথা এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়দার আলী ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কল ফয়সাল মাহমুদ বিভিন্ন যানবাহন তল্লাসী করেন এবং কাগজপত্র দেখাতে না পারায় অনেক যানবাহনে মামলার নির্দেশ দেন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com