বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:১৭ অপরাহ্ন

বগুড়ায় লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ রাত থেকে বৃষ্টি আর করোনা বিস্তার রোধে কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন স্থবিরতা নেমে এসেছে বগুড়ায়। সীমিত সংখ্যক রিকশা ছাড়া সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সড়কপথে বিচ্ছিন্নভাবে প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল বের হলেও পথে পথে তাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জেরার মুখে পড়তে হয়েছে।
কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে বগুড়ায় মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‍্যাব। বৃহস্পতিবার সকালে শহরের সাতমাথা থেকে এই অভিযান শুরু হয়। শহরে রিক্সা,মোটর সাইকেল ও গাড়ি থামিয়ে যাত্রীদের পরিচয় এবং রাস্তার বের হওয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করা হয়েছে। দিনভর শহরের বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‍্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখাগেছে।

বৃহস্পতিবার শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, প্রায় প্রতিটি মোড়ে পুলিশি তৎপরতা। মাঝে মাঝে কিছু সংখ্যক প্যাডেলচালিত রিকশা চলাচল করতে দেখা যায়। তবে মোটরসাইকেলের সংখ্যা ছিল কিছুটা বেশি। চেকপোস্টগুলোতে তাদের আটকানো হলেও কর্মস্থলের পরিচয়পত্র প্রদর্শন কিংবা নানা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হওয়ার কারণ দেখিয়েছেন তারা। সব ধরনের বিপনী বিতান এমনকি পাড়া মহল্লার দোকানপাটও বন্ধ রয়েছে।

বগুড়ার জেলা প্রশাসক জিয়াউল হক সকাল থেকে বগুড়া শহরের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করেছেন। বেলা ১২টার দিকে শহরের সাতমাথায় তিনি বলেন, জেলায় কঠোর বিধিনিষেধ পালনে সেনাবাহীনি, বিজিবি, পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা মাঠে রয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ভূমি কর্মকর্তারা মাঠে থাকবে সবসময় । জেলা শহরে জেলা প্রশাসনের বেশ কয়েকটি ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে ভ্রাম্যমান আদালত নিয়োজিত রয়েছে। অন্যান্য বারের তুলনায় এবার আরও কঠোর বিধি নিষেধ পালনে কঠোর ভূমিকা পালন করা হবে। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে এই কঠোর ভূমিকা পালন করা হবে।

 

এসময় জেলা প্রশাসক বগুড়ার বাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, নিজে নিজেকে রক্ষা করুন। বিনা প্রয়োজনে ঘরেই থাকুন। নিজের দায়িত্ব নিজে না নিলে কঠোর বিধি নিষেধ দিয়ে করোনা সংক্রমণ ঠেকানো সম্ভব নয়।

অপরদিকে সকাল থেকে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা পুলিশ সদস্যদের নিয়ে কাজ করছেন। তিনি বলেন, এবারের লক ডাউন অন্যরকম। যেহেতু করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে। বগুড়া জেলায় আর্মি পুলিশ বিজিবি মাঠে রয়েছে। আমরা বগুড়াবাসীকে বলব অতিতে যেভাবে আমাদের সহযোগীতা করেছেনে এবারেও সেভাবে সহযোগিতা করবেন। নিত্যপ্রয়োজনীয় বিশেষ কোন প্রয়োজন ছাড়া বাহিরে বের হবেন না। এসময়টা আপনার পরিবারকে দেন, আপনার সন্তানদের দেন। আমরা চাই নির্দেশনা যা রয়েছে তা প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্বে মেনে চলবে। এটাই আমাদের বিশেষ অনুরোধ।

 

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com