মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

কঠোর বিধিনিষেধের প্রথম দিনে চট্টগ্রামে ৮৭ মামলা

চট্রগ্রাম প্রতিনিধিঃ সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধ যথাযথভাবে পালন করতে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে মাঠে নেমেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে ও জেলা প্রশাসনের ভিন্ন ভিন্ন টিম। লকডাউনের প্রথম দিনেই বিধিনিষেধ অমান্য করার অপরাধে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে ৫০ টি মামলা দায়ের করে ২৪টি গাড়ি জব্দ করেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ।

অন্যদিকে একই অপরাধে পৃথক পৃথক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৩৭টি মামলায় ১৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নয় টিম।   চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক জানান,সরকার ঘোষিত বিধি-নিষেধ সফলভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে মোট নয় জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছে।   এ সময় সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ মেনে না চলায় বিভিন্ন দোকান, রেস্টুরেন্ট এবং শপিং মলে অর্থদণ্ড প্রদান করার পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে সচেতন করা হয়। তিনি জানান, নগরীর চকবাজার ও বাকলিয়া এলাকায় অভিযানের নের্তৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত।  এ অভিযানে ৭ মামলায় ৭শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। খুলশী  ও বায়েজিদ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাসান, তিনি ১ মামলায় ৫শ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নগরীর কোতোয়ালি এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ৬ মামলায় মোট এক হাজার ৬শ টাকা জরিমানা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুক।   নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাসুদ রানার নের্তৃত্বে অভিযান চালানো হয় হালিশহর এলাকায়। এ অভিযানে ৪ মামলায় ৪ হাজার ৭শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।   পতেঙ্গা এলাকায় ৪ মামলায় ১ হাজার ২শ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিল্লুর রহমান। একই এলাকায় পৃথক অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন। এ সময় ১ মামলায় ১ হাজার টাকা অর্থদণ্ড আদায় করা হয়। নগরীর বন্দর ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৯ মামলায় ১ হাজার ১শ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নূরজাহান আক্তার সাথী।   অন্যদিকে পাহাড়তলি ও আকবরশাহ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৭ মামলায় ২ হাজার টাকা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ। তাছাড়াও চান্দগাঁও ও পাচলাইশ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস।     তবে প্রথম দিন হিসেবে এসব অভিযানে কাউকে আটক করা হয়নি জানিয়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সংক্রমণ বিস্তার রোধ করার লক্ষ্যে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা প্রশাসনের অভিযান অব্যাহত থাকবে জানালেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক।   তিনি বলেন, যারা বিনা কারণে ঘর থেকে বের হচ্ছে তাদের শাস্তি প্রদান করা হবে এবং নির্দেশনার বাইরে যেসব দোকান খোলা রাখেবে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।   অন্যদিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) শ্যামল কুমার নাথ জানান, সরকারি বিধিনিষেধ যথাযথভাবে পালনের লক্ষ্যে আজ সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালানো হয়েছে। এতে যারা বিনা কারণে গাড়ি নিয়ে ঘর থেকে বের হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রথমদিনে চট্টগ্রামে মোট ৫০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাছাড়া প্রাইভেটকার,মাইক্রোবাস, সিএনজি, টমটম, ব্যাটারিচালিত রিকশাসহ মোট ২৪টি গাড়ি আটক করা হয়েছে। অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com