মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:১৯ অপরাহ্ন

দেশজুড়ে ৪৭ জনের অধিক সাংবাদিকের মুক্তির দাবীতে বিআরজেএ`র বিক্ষোভ সমাবেশ

যমুনা নিউজ বিডিঃ wবীরমুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক নেতা রুহুল আমীন গাজী, সাংবাদিক নেতা শাহাদাত হোসেন দেশজুড়ে ৪৭ জন অধিক সাংবাদিকের মুক্তির দাবীতে বিআরজেএ`র বিক্ষোভ সমাবেশ। এইকারাগার ভাঙতে দলমতের উর্দ্ধে উঠতে-মাহমুদুর রহমান মান্ন- আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক এ্যাসোসিয়েশন(বিআরজেএ) বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বিআরজেএ`র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাখাওয়াৎ হোসেন ইবনে মঈন চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন নাগরিক ঐক্যকের মাহমুদুর রহমান মান্না, বিশেষ অতিথি সর্বজনাব বিএফইউজে-বাংলাদেশ এর সভাপতি এম,আব্দুল্লাহ, জাতীয় প্রেসক্লাব এর সাবেক নির্বাচিত সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, বিএফইজের মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন, এছাড়াও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন এর সাবেক সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার, ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী,বিএফইউজে-বাংলাদেশ এর সহ-সভাপতি মোদ্দাবের হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃশহিদুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরদার ফরিদ উদ্দিন,ডিইউজের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহিন হাসনাত,সহ-সভাপতি মোঃরাশেদুল হক,সাংগঠনিক সম্পাদক দিদারুল আলম,বিআরজেএর মহাসচিব মোহাম্মদ আবু হানিফ,সাংবাদিক নেতা আমিরুল ইসলাম কাগজ,ডিইউজের দপ্তর সম্পাক ডি এম অমর প্রচার সম্পাদক খন্দকার আলমগীর,যুগ্ম মহাসচিব আবু ইউসুফ প্রমুখ।প্রধান অতিথি মানুষের মৌলিক গনতান্ত্রিক, বাক স্বাধীনতা খর্ব করার ফল কোন দিনই ভাল হয় না।তিনি বলেন বিচারককে স্বাধীন ভাবে কাজ করতে না দিলে অনির্বাচিত শাসকের ভবিষ্যৎ ভাল হয় না। তিনি বলেন অবিলম্বে বীরমুক্তিযোদ্ধা রহুল আমীন গাজী, শাহাদত হোসেন সহ সকল সাংবাদিকদের মুক্তির দাবী করেন।এম,আব্দুল্লাহ ৭মাস ৭দিন এই নেতা কারাগারে জামিন হলেও চেম্বার জজ তা স্হগিত করে।এ্যাটোনি জেনারেলের অফিস আপত্তি করলে,জামিন স্হগিত করে। অবিলম্বে জামিন না দিলে প্রধান বিচারপ্রতির খাস কামরা সামনে অবস্হান ধর্মঘট করা হবে।কামাল উদ্দিন সবুজ বলেন বর্তমান সরকার যদি গনতন্ত্র সামন্য বিশ্বাস করে তাহলে রুহুল আমিন গাজী সহ আটক সকল সাংবাদিককে মুক্তি দিবেন।কবি আব্দুল হাই বলেন যাদের ইজ্জত নাই, তার অনির্বাচিত হয়ে জুলুম করে, তাদের রক্ষা পেতে হলে ক্ষমতা থেকে অপস্মরণের কোন বিকল্প নাই। কাদের গনি চৌধুরী বলেন দেশের সবচাইতে বড়দলের নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিচারের নামে প্রহসন করা হয়েছে।এখন চল্লিশ বছর ধরে সাংবাদিকদের রুটি রুজি আন্দোলন করে আসছেন,তাকেও ন্যায় বিচার থেকে বন্চিত করা হচ্ছে। অসুস্থ বীরমুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক নেতা রুহুল আমীন গাজী, শাহাদাত হোসেন সহ সকল সাংবাদিককে মুক্তি দেওয়া না হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে।চেয়ারম্যান তার বক্তব্য বলেন অবিলম্বে বীরমুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক নেতা রুহুল আমীন গাজী, শাহাদাত হোসেন সহ আটক সাংবাদিকদের দুই সপ্তাহের মধ্যে মুক্তি দেও না হলে,সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, মজলুম সম্পাদক মাহমুদুর রহমান,সংগ্রামের প্রবিন সম্পাদক আবুল আসাদ সাহেবদের মামলা প্রত্যাহার করতে হবে।আমার দেশ,দিগন্ত টিভি,ইসলামীক টিভি,চ্যানেল ওয়ান,সিএসবি সহ অবৈধ ভাবে সাময়িক গনমাধ্যম ক্ষতি পুরণ সহ অনলাইনে অবিলম্বে আসতে দিতে হবে।স্বাধীন দেশে অসভ্য ও উপনিবেশিক কালো আইন দিয়ে রাষ্ট্রের ক্ষতিকর কাজ গুলো রাষ্ট্রের মালিক জনগনকে জানার অধীকার থেকে বন্চিত করা হচ্ছে। এ সব আইন উচ্চ আদালত বাতিল ও সাংবাদিকদের জামিনের ব্যাবস্হা গ্রহণ করতে না চাইলে আদালত গেটে অবস্হান ধর্মঘট করা হবে।সবাই বলেন যারা বিপদে পরলে সাংবাদিক ঐক্য ঐক্য বলেয় চেঁচা আজ তারা নাই।হয়তো তারা নিউজটা প্রকাশ করবে না।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com