সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৩৮ অপরাহ্ন

দুবাইয়ে রাখির বিয়ে, পরিবার জুম ভিডিওতে

যমুনা নিউজ বিডিঃ ভালোবেসে ঘর বাঁধলেন মডেল, অভিনেত্রী ও প্রকৌশলী রাখি মাহবুবা। তার বর ব্যবসায়ী সাজ্জাদ হোসেন। তিনি বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত সিঙ্গাপুরের নাগরিক।

ইত্তেফাক অনলাইনকে রাখি মাহবুবা জানিয়েছেন, আজ (২১ মে) স্বাস্থবিধি মেনে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ওয়ান অ্যান্ড অনলি রয়েল মিরেজ হোটেলে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

হোটেলে বর-কনের সামনে ছিলেন বিয়ে পড়ানোর কাজী, দুইজন সাক্ষী এবং রাখির খালাত ভাই ও চাচাত ভাই। অস্ট্রেলিয়া ও সিঙ্গাপুর থেকে জুম ভিডিওতে যুক্ত হন দুই পরিবারের সদস্যরা।

মধুচন্দ্রিমায় প্রথমে জার্মানি, এরপর সুইজারল্যান্ডে যাবেন নবদম্পতি। এরপর সিঙ্গাপুরে ফেরার পরিকল্পনা আছে বলে ইত্তেফাক অনলাইনকে জানিয়েছেন রাখি।

দুবাইয়ের পাম জুমেরাহর হোটেল আটলান্টিসে উঠেছেন রাখি। শহরের হিলিট বিউটি পার্লারের কর্মীরা হোটেল কক্ষে গিয়ে তাকে সাজিয়ে দিয়েছেন। তাদের হোম সার্ভিস দিয়ে থাকে।

বিয়ের পূর্বমুহূর্তে বধূ সাজে বেশ কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন রাখি। ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘যখন ছোট ছিলাম, তখন সুন্দরী বউ হওয়ার স্বপ্ন দেখতাম। সেই স্বপ্ন সত্যি হয়েছে! সবাই দোয়া করবেন।

গত ১৯ মে দুবাইয়ের মরুপ্রান্তরে হট এয়ার বেলুনে ঘুরে বেড়ানোর সময় রাখি মাহবুবাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন সাজ্জাদ হোসেন। এরপর তার অনামিকায় হীরা ও স্বর্ণখচিত আংটি পরিয়ে দেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সুখবরটি শেয়ার করেন রাখি মাহবুবা।

বাগদানের পর ইত্তেফাক অনলাইনকে রাখি মাহবুবা বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে সিঙ্গাপুর ও অস্ট্রেলিয়ায় ধুমধাম করে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা আয়োজনের ইচ্ছে আছে। আপাতত দুবাইয়ে বিয়ের কাজটা সেরে ফেলবো।’

প্রায় দুই বছর আগে সম্পর্কে জড়ান রাখি মাহবুবা ও সাজ্জাদ হোসেন। ২০১৯ সালের জুলাইয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নিউইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে তাদের প্রথম দেখা। সেদিন ছিলো রাখির জন্মদিন। তখন সেখানে বেড়াতে গিয়েছিলেন রাখি। অন্যদিকে একটি সম্মেলনে যোগ দিতে যান সাজ্জাদ। পরিচয়ের পর ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে সখ্য। এরপর তা গড়ায় প্রেমে। বিয়ের মধ্য দিয়ে এই সম্পর্কের সফল সমাপ্তি হতে যাচ্ছে।

‘লাক্স–চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০১০’ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন রাখি মাহবুবা। এরপর অর্ধশতাধিক নাটক-টেলিছবিতে অভিনয় করেছেন বিভিন্ন চরিত্রে। বিজ্ঞাপনচিত্র ও মিউজিক ভিডিওতে দেখা গেছে তাকে। তিনি টিভি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেছেন। সেগুলো সবই ২০১১ থেকে ২০১৩ সালের কথা। এরপর জনপ্রিয়তার মায়া কাটিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে পড়াশোনা করে তিনি হয়েছেন প্রকৌশলী।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com