সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৩:৩৩ অপরাহ্ন

বজ্রপাতে পাঁচ জেলায় শিশুসহ ১৩ জনের মৃত্যু

যমুনা নিউজ বিডিঃ দেশের পাঁচ জেলায় বজ্রপাতে শিশুসহ ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে সন্ধ্যার মধ্যে এসব ঘটনা ঘটে। বজ্রপাতে নেত্রকোনায় আটজন, মানিকগঞ্জে দুইজন এবং ফরিদপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও হবিগঞ্জে একজন করে প্রাণ হারান।

ইত্তেফাকের প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর:

নেত্রকোনা

নেত্রকোনার কেন্দুয়া, খালিয়াজুরী, পূর্বধলা ও মদন উপজেলায় বজ্রপাতে ৭ জন কৃষক ও একজন শিশু নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও নয়জন। মঙ্গলবার (১৮ মে) বিকালে এ ঘটনা ঘটে। মাঠে কাজ করার সময় কৃষকদের মৃত্যু হয়।

নেত্রকোনা পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুন্সি বজ্রপাতে আটজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বজ্রপাতে নিহত কৃষকেরা হলেন-কেন্দুয়া উপজেলার পাইকুড়া ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের মো. বায়েজিদ মিয়া (৪২) ও কান্দিউড়া ইউনিয়নের কুণ্ডলী গ্রামের মো. ফজলুর রহমান (৫৫) এবং খালিয়াজুরী উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের খেলু ফকিরের ছেলে কৃষক অছেক মিয়া (৩২), একই গ্রামের আমির সরকারের ছেলে কৃষক বিপুল মিয়া (২৮) ও বাতুয়াইল গ্রামের মঞ্জুরুল হকের ছেলে মনির (২৮)। তারা ওই এলাকার বরবরিয়া হাওরে কাজ করছিলো।

এদিকে মদন উপজেলার পশ্চিম ফতেপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে হাফেজ মো. শরীফ (১৮) ও একই গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নাফের ছেলে মাওলানা আতাবুর রহমান (১৯) ফতেপুর এলাকার একটি হাওরে বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন।

এছাড়াও পূর্বধলায় বিকালে বজ্রপাতে যোবায়ের ফকির (১২) নামের এক শিশু মারা গেছে। সে উপজেলার ধলামূলগাঁও ইউনিয়নের পাটলী গ্রামের ইছহাক ফকিরের ছেলে।

জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে যোবায়েরসহ কয়েকজন শিশু বাড়ির পাশে খোলা মাঠে ফুটবল খেলছিলো। এ সময় হঠাৎ বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হলে অন্য শিশুরা দৌঁড়ে বাড়ি চলে যায়। এ সময় শিশু যোবায়ের মাঠের পাশে একটি মাটি কাটার ভেকু মেশিনের নিচে আশ্রয় নেয়। বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফরিদপুর

ফরিদপুরের মধুখালীর চাঁদপুরে কবির শেখ (৪০) নামে এক কৃষক বজ্রপাতে মারা গেছেন। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সে ওই এলাকার নবীন সেখের ছেলে। মাঠে পাটক্ষেত পরিচর্যার সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. কবির সরদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে এক কিশোর নিহত হয়েছে। নিহত ওই কিশোরের নাম ফারুক আহমেদ (১৫)। সে উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের সাহাপাড়া গইড়্যা পাড়া গ্রামের জিয়াউর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হোসেন আলী জানান, মঙ্গলবার বিকালে ফারুক আহমেদ নিজ গ্রামে চৌধুরী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে এক দোকানে বসে থাকার সময় বজ্রপাতে গুরুতর আহত হয়। এ সময় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শিবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে তাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে বজ্রপাতে নাছির মিয়া (১০) নামের এক শিশু মারা গেছে। সে সদর ইউনিয়নের ছোট আলীপুর গ্রামের ইসমাইল মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে নাছিরের বড় ভাই ফয়ছল মিয়া (১৬)। মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, নাছির মিয়া ও ফয়ছল মিয়া স্থানীয় বেতুয়ার হাওরে মাছ ধরতে গেলে বজ্রপাতে হতাহত হয়। এ সময় নাছির মিয়া নিহত ও তার ভাই আহত হয়। এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জে পৃথক দুই স্থানে বজ্রপাতে দুইজন মারা গেছেন এবং আহত হয়েছেন আরও তিনজন। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন-সদর উপজেলার গিলন্ড গ্রামের মাসুদুর রহমানের ছেলে আসিফ (১৪) ও ঘিওর উপজেলার কৃষক আমোদ আলী (৫০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে হঠাৎ গুড়িগুড়ি বৃষ্টির মধ্যে বজ্রপাত শুরু হয়। এসময় সদর উপজেলার গিলন্ড গ্রামের মাঠে তিন কিশোর ঘুড়ি ওড়াচ্ছিল। বজ্রপাতের আঘাতে কিশোর আসিফ ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আহত হয় অপর দুই কিশোর আবদুল্লা ও অনিক। তাদের স্থানীয় মুন্নু মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে সদর উপজেলার পৌলী গ্রামের মাঠে ধান ক্ষেতে কাজ করছিলো কৃষক আমোদ আলী ও তার ভাতিজা আলমগীর। বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই আমোদ আলী মারা যান। আহত আলমগীরকে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com