রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৯ অপরাহ্ন

জিরার আয়ুর্বেদিক গুণ

যমুনা নিউজ বিডিঃ আয়ুর্বেদিক গুণাগুণে সমৃদ্ধ বেশিরভাগ মশলা। তার মধ্যে জিরা অন্যতম। রান্নার স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি জিরার স্বাস্থ্যসম্মত গুণাগুণ প্রচুর। জিরাকে আমরা মশলা হিসেবে জানলেও এর গুণ সম্পর্কে জানিনা। তাহলে জিরার গুণগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

হজমে সাহায্য করে

জিরা বহুদিন ধরেই হজমের সহায়ক হিসেবে  ব্যবহার হয়ে আসছে। জিরার প্রভাবে বাড়ে হজমে সহায়ক উৎসেচকের ক্ষরণ। ফলে হজমের প্রক্রিয়া দ্রুত হয়। তাছাড়া জিরার জন্য যকৃৎ বা লিভার থেকে পিত্ত বা বাইল ক্ষরণ বাড়ে। এই পিত্ত-ও সাহায্য করে পরিপাক ক্রিয়ায়।

আয়রনের উৎস জিরার দানা প্রাকৃতিকভাবে আয়রনের উৎস। এক চামচ জিরার গুঁড়ায় আছে ১.৪ মিলিগ্রাম আয়রন।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে শরীরের ক্ষতিকারক ট্রাইগ্লিসারইড নিয়ন্ত্রিত থাকে জিরার প্রভাবে। সরাসরি জিরা খাওয়ার পাশাপাশি জিরা ভেজানো পানির উপযোগিতার কথাও বলা হয়েছে আয়ুর্বেদে। রাতে এক কাপ পানিতে অর্ধেক চামচ জিরা ভিজিয়ে রাখুন। সকালে উঠে খালি পেটে পান করুন। অনেকে গোটা জিরা ফুটিয়েও মিশ্রণ বানান। তারপর ওই পানি পান করেন। জিরা মিশ্রিত পানি পান করার গুণাগুণ অনেক।

এই মিশ্রণ পান করার উপকার- পাকস্থলীর স্বাস্থ্যের জন্য সহায়ক। বাড়তি মেদ ঝরিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় হজমের গণ্ডগোল কম রাখতে সাহায্য করে। মাতৃদুগ্ধের পরিমাণ বাড়ায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। মধুমেহ রোগীদের জন্যও উপকারী। নিয়্ন্ত্রণে থাকে উচ্চরক্তচাপ। এছাড়া লিভার ভালো রাখে। তাছাড়া রক্তস্বল্পতা দূর করে কর্মক্ষমতা বাড়ায়। চুলের উজ্জ্বলতা বজায় থাকে। বয়সের ছাপ মুছে এবং ব্রণ দূর করে ত্বকের চাকচিক্য ধরে রাখে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com