শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন

News Headline :
সিরাজগঞ্জ চৌহালী উপজেলায় যমুনা নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ-০১ নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা : তথ্যমন্ত্রী চরকার আদিজন্ম ভারত, ইউরোপের শিল্পে যেভাবে জনপ্রিয় হলো রাজবাড়ীতে অস্ত্র ও গুলি সহ দুই সন্ত্রাসী গ্রেফতার আফগানিস্তানে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬০, নিখোঁজ ১৫০ পরিদর্শন ও নিরীক্ষা বিভাগের ডিডিকে পবিত্রতা অনুশীলনের জন্য এমওই প্রদান আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সীমান্তে ফের সংঘাত, নিহত ৩ আর্মেনীয় সেনা ৫ আগস্টের পরও বিধিনিষেধ বহালের সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদফতরের গোবিন্দগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ যুবক নিহত টেকনাফে ১ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি আটক

“ন্যায় বিচারের নিশ্চয়তা পেলেই দেশে ফিরবেন তারেক রহমান”

যমুনা নিউজ বিডিঃ ন্যায় বিচার পাবার নিশ্চয়তা পেলেই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দেশে ফিরবেন বলে প্রত্যাশা দলটির আইনজীবীদের। তারা বলছেন, আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হবেন ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় যাবজ্জীবনসহ চার মামলায় সাজা পাওয়া পলাতক এই আসামী।
বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা মামলার যাবজ্জীবন সাজা হয়েছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের। এছাড়া দুর্নীতিসহ আরো তিনটি মামলায় সাজা পাওয়া পলাতক আসামী তিনি।

বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, খালেদা জিয়া যেভাবে আইনকে অনুসরণ করেছেন তারেক রহমানও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। কিন্তু উনাকে যেভাবে অবৈধভাবে সাজা দেয়া হয়েছে এভাবেতো কোন কিছু করা যাবে না। কারণ আইন সবার জন্য সমান থাকতে হবে।

ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হওয়া মামলা ও তার রায়ের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে দলের আইনজীবীদের। বিএনপির মানবাধিকার বিষয়ক কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার ফারজানা শারমিন বলেন, উনিতো কোন দাগী আসামি না। উনাকে মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়েছে। উনাকে যে দণ্ড দেয়া হয়েছে মানুষ জানে কেনো এবং কি কারণে দেয়া হয়েছে। প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়েই তাকে এসব দণ্ড দেয়া হয়েছে।

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, অর্থ পাচার মামলায় উনাকে কিন্তু সম্পুর্ন নির্দোষ প্রমাণ করা হয়েছে কিন্তু পরবর্তীতে আবার দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। ২১শে আগস্ট মামলায় উনাকে সম্পুর্ন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে সাজা দেয়া হয়েছে।

দেশের প্রচলিত বিচার ব্যবস্থার প্রতি আস্থা নেই বিএনপির। তাই তারেক রহমান দেশে ফিরলে ন্যায় বিচার পাবেন বলে বিশ্বাস করেন না বিএনপি নেতারা।

ব্যারিস্টার ফারজানা শারমিন বলেন, তারেক রহমানকে পঙ্গু করে দেশ থেকে চলে যেতে হয়েছে। উনি দেশে ফিরলে তাকে বাঁচতে দিবে না। আমাদেরকে আরও শক্তি সঞ্চার করতে হবে। আর তারেক রহমানই হচ্ছে আমাদের সেই শক্তি।

সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ঘুষ গ্রহণের মামলায় গ্রেপ্তার তারেক রহমান ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর প্যারোলে মুক্তি পেয়ে চিকিৎসার জন্য সপরিবারের লন্ডন যান। প্যারোলের মেয়াদ শেষ হলেও দেশে ফেরেননি তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com