সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:০৮ অপরাহ্ন

সন্ত্রাসবিরোধী রাজু দিবস ” উপলক্ষে ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়ার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

যমুনা নিউজ বিডিঃ বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদ-এর উদ্যোগে ছাত্র ইউনিয়ন জেলা কার্যালয়ে ১৩ মার্চ শনিবার বিকাল ৪ টায় “সন্ত্রাসবিরোধী রাজু দিবস” উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদের সভাপতি মোঃ সাদ্দাম হোসেন এবং পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোহানুর রহমান সোহান।আলোচনা সভার শুরুতে শহীদ মঈন হোসেন রাজু’র স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক ছাব্বির আহম্মেদ, কোষাধ্যক্ষ বায়েজিদ রহমান,শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক নাইম ইসলাম,প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক সুজয় কুমার পাল,সরকারি আজিজুল হক কলেজ সংসদ এর সাধারণ সম্পাদক সাগর পারভেজ,কোষাধ্যক্ষ মিসবাহ আলম, ছাত্রনেতা তানবির  তন্ময়,বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সহ সভাপতি নাদিম মাহমুদ, বগুড়া জেলা সংসদের সাবেক সহ সভাপতি আকতার-উজ-জামান টুটুল,যুবনেতা আহসান হাবিব,সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড জিন্নাতুল ইসলাম,বাংলাদেশ কৃষক সমিতি বগুড়া জেলা কমিটির সাধারণ  সম্পাদক হাসান আলী শেখ, সিপিবি সভাপতি হাফিজ আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, শহীদ মঈন হোসেন রাজু ছিলেন এদেশের  ঐতিহ্যবাহী প্রগতিশীল ছাত্র গণসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন এর বিপ্লবী নেতা, তারুণ্যের ও সন্ত্রাসবিরোধী আন্দোলনের অনন্য প্রতীক। ছিলেন সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের কাছে প্রিয় ও সাহসী নাম। তার আদর্শ কে ধারণ করে শিক্ষাঙ্গন সন্ত্রাস মুক্ত করতে এখন পর্যন্ত সারাদেশের ছাত্র-ছাত্রীরা লড়াই সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন। বক্তারা আরও বলেন, যতদিন পর্যন্ত শিক্ষাঙ্গন পুরোপুরিভাবে সন্ত্রাস মুক্ত না হবে, ততদিন পর্যন্ত লড়াই সংগ্রাম জারি থাকবে।এছাড়া বক্তারা রাজু হত্যার বিচার,সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন প্রতিষ্ঠা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ১৩ ই মার্চকে সন্ত্রাসবিরোধী রাজু দিবস হিসেবে পালনের দাবি জানান।

উল্লেখ্য যে, ১৯৯২ সালের ১৩ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দু’টি ছাত্র সংগঠনের গুলাগুলির মধ্যে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতী শিক্ষার্থী বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন এর বিপ্লবী নেতা মঈন হোসেন রাজুর নেতৃত্বে বের হয় সন্ত্রাসবিরোধী সাহসী মিছিল। সেই মিছিলেই সন্ত্রাসীদের ছোড়া গুলিতে তিনি শহীদের মৃত্যুবরণ করেন। অসীম সাহসী সেই রাজুর স্মৃতি ধরে রাখতেই বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন এর উদ্যোগে ১৯৯৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণকেন্দ্র টিএসসি’র সড়ক দ্বীপে নির্মিত হয় গৌরবময় ইতিহাসের আরেকটি অধ্যায়, যে-কোনো কঠিন সময়ে এগিয়ে যাবার প্রেরণা, সকলের গর্বের “ সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাষ্কর্য ”। রাজু ভাষ্কর্য হচ্ছে তারুণ্যের প্রতীক।এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্ঞান,বিজ্ঞান,শিক্ষা,সংস্কৃতি,গবেষণা,আন্দোলন ও লড়াই সংগ্রামের সুতিকাগারে পরিণত হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com