রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন

সিপিবি’র ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

যমুনা নিউজ বিডিঃ আজ (৬ মার্চ) বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। বিগত শতাব্দির বিশের দশকে ভারতবর্ষের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিআই) প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৪৮ সালের ৬ মার্চ সিপিআই-এর দ্বিতীয় কংগ্রেসে পৃথকভাবে প্রতিষ্ঠিত রাষ্ট্র পাকিস্তানের প্রতিনিধিরা ভিন্ন একটি অধিবেশনে মিলিত হয়ে স্বতন্ত্রভাবে পাকিস্তানের কমিউনিস্ট পার্টি এবং একইসঙ্গে পার্টির পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক কমিটি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৬৮ সালে পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক কমিটির ৪র্থ সম্মেলনে পৃথক কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করে স্বতন্ত্র ও স্বাধীন পার্টি হিসেবে পূর্ব পাকিস্তানের কমিউনিস্ট পার্টি কার্যক্রম শুরু করে এবং ওই সম্মেলনকে প্রথম পার্টি কংগ্রেস হিসেবে গ্রহণ করা হয়। পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পরপরই কমিউনিস্ট কর্মীদের ওপর হত্যা, নির্যাতন, জেল-জুলুম-হুলিয়ার খড়গ নেমে আসে। হাজারো কমিউনিস্টকে দেশত্যাগে বাধ্য করা হয়। ১৯৫০ সালের ২৪ এপ্রিল রাজশাহীর খাপড়া ওয়ার্ড কমিউনিস্ট রাজবন্দিদের ওপর পুলিশ গুলি চালালে সাতজন কমরেড শহিদ হন। পূর্ব পাকিস্তানের কমিউনিস্টরা তীব্র গণআন্দোলন গড়ে তোলেন। তেভাগা, নানকার, টংকসহ নানা কৃষক আন্দোলন, শ্রমিক আন্দোলনের পাশাপাশি ছাত্র ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন সংগঠিত করেছেন। ঐতিহ্যবাহী গণসংগঠনগুলো প্রতিষ্ঠার পেছনে কমিউনিস্ট পার্টির ভূমিকাই মুখ্য।

ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচারবিরোধী গণতান্ত্রিক সংগ্রাম, সাম্প্রদায়িকতা ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী লড়াই, জাতীয় সম্পদ রক্ষার আন্দোলন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের আন্দোলন, যুদ্ধাপরাধী সংগঠন জামাত-শিবির নিষিদ্ধের আন্দোলনসহ সকল আন্দোলন-সংগ্রামেই সিপিবি অনন্য ভূমিকা পালন করেছে। ভাষা আন্দোলনসহ দীর্ঘদিনের গণসংগ্রামে এবং মুক্তিযুদ্ধে সিপিবির ভূমিকা বিশেষ মর্যাদার ও অনেক বিষয় মৌলিক প্রভাব সৃষ্টিকারী। সিপিবি বর্তমানে ‘গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার’সহ দেশকে মুক্তিযুদ্ধের ধারায় ফিরিয়ে আনার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকেন্দ্রিক দ্বি-দলীয় মেরুকরণের বাইরে বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প গড়ে তোলার কঠিন ও জটিল পথ পরিক্রমায় নানামুখী তৎপরতায় সিপিবি তার প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। দেশ ও জাতির কাঙ্ক্ষিত মুক্তির জন্য সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে বিপ্লবী গণতান্ত্রিক পরিবর্তন সাধনে সিপিবি কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে দেশের শ্রমিক, কৃষক, ক্ষেতমজুর, মেহনতি মানুষসহ সর্বস্তরের দেশবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বিগত দিনে পার্টির পতাকা সমুন্নত রাখতে গিয়ে যাঁরা শহীদের মৃত্যুবরণ করেছেন, তাঁদের স্মৃতির প্রতি নেতৃবৃন্দ গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অতীতে ও বর্তমানে নানাভাবে যাঁরা পার্টিতে অবদান রেখেছেন ও রাখছেন তাঁদের সকলকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগ্রামী অভিনন্দন জ্ঞাপন করেছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ যথাযোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য সারাদেশে পার্টির সকল কমিটি ও শাখার প্রতি আহ্বান জানান। বিবৃতিতে বলা হয়, ৬ মার্চ যখন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হবে তখন আমাদের ছয়জন ছাত্র কমরেডসহ অনেকেই স্বৈরাচারের চার দেয়ালে বন্দি রয়েছেন। তাদের জামিন নামঞ্জুর হয়েছে। এবারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে জুলুমবাজ সরকারের বিরুদ্ধে গর্জে ওঠা সাহসী বীর তরুণদের মুক্তির দিবসে পরিণত করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। বিবৃতিতে গ্রাম-শহর সর্বত্র প্রতিটি শাখা, থানা/উপজেলা, জেলায় কারাবন্দি কমরেডদের মুক্তির দাবিতে সোচ্চার হয়ে প্রতিষ্ঠা দিবস পালন করার জন্য নেতৃবৃন্দ আহ্বান জানিয়েছেন। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সিপিবি ঢাকা কমিটির উদ্যোগে বিকেল তিনটায় পুরানা পল্টনের মুক্তিভবনের সামনে সমাবেশ ও লাল পতাকার মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com