Home / Uncategorized / শিবগঞ্জে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সংঘর্ষ উভয় গ্রুপের ১১জন আহত সম্মেলন ভুন্ডুল

শিবগঞ্জে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সংঘর্ষ উভয় গ্রুপের ১১জন আহত সম্মেলন ভুন্ডুল

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের
ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন কেন্দ্রে করে ২ গ্রুপে মধ্যে সংঘর্ষ, মঞ্চের চেয়ার
ভাংচুর, সম্মেলন ভুন্ডুল, উভয় গ্রুপের ১১জন আহত, পুলিশের
সহযোগিতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ।
জানা যায়, আগামী ১৮ ডিসেম্বর শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-
বার্ষিকী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এ সম্মেলন সফল করতে উপজেলার
প্রতিটি ইউনিয়ন, পৌরসভা সহ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক
সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা
আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। এর ধারাবাহিকতায় গত সোমবার সন্ধ্যায়
উপজেলার ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ত্রি-
বার্ষিক সম্মেলন জাঙ্গালপাড়া গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলন চলাকালে
ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মেজবাউল হক, শ্রী বাবলু সরকার কে
নির্বাচিত করার দাবী জানান অপরদিকে ময়দানহাট্টা ইউপি চেয়ারম্যান
এসএম রূপম ইউসুফ আলীকে নির্বাচিত করার প্রস্তাব পেশ করেন। এ
ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করে । এর
একপর্যায়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে উভয়
গ্রুপের মধ্যে মঞ্চের চেয়ার ছোরাছুরি, লাঠি-শোটা নিয়ে ধাওয়া
পাল্টা ধাওয়া শুরু হয় ও মারপিটের ঘটনা ঘটে। ফলে সম্মেলনটি ভুন্ডুল হয়ে
যায়। এ ঘটনায় উভয় গ্রুপের ১১ জন নেতাকর্মী আহত হয়। আহতরা
হলেন মেজবা গ্রুপের আছালত জামান, সুজন মাস্টার, আব্দুস সালাম
তোতা, বিষে, শ্রী বাবলু, ইউসুফ, চেয়ারম্যান গ্রুপের খলিলুর রহমান,
রায়হান আলী, খোকন ইসলাম, রকি মিয়া, আবুল হোসেন। এব্যাপারে
ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মেজবাহুল হক মেজবা বলেন, অন্য
ওয়ার্ডের কৃষকলীগের নেতৃবৃন্দকে নিয়ে চেয়ারম্যান সমর্থকরা হঠাৎ
মারমুখী আচরণ করায় সম্মেলন ভুন্ডুল হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউপি
চেয়ারম্যান এসএম রূপম বলেন, সম্মেলনে উপস্থিত নেতাকর্মীদের
সমর্থনে নেতা নির্বাচিত হওয়ার কথা, কিন্তু কমিটি গঠনে অনিয়ম
হওয়ায় আমার সমর্থকদের সাথে সংঘর্ষ বাঁধে। তিনি আরো বলেন,
বিকাল ৩টায় সম্মেলন হওয়ার কথা অথচ উপজেলা নেতৃবৃন্দ দেরীতে

সম্মেলনে উপস্থিত হওয়ার কারণে তার ক্ষিপ্ত হয়ে যাওয়ায় এ পরিস্থিতি
সৃষ্টি হয়। এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আজিজুল হক
বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান এসএম রূপম কৃষকলীগের নেতাকর্মী ও
বহিরাগত লোক নিয়ে এসে এ ওয়ার্ডের নেতা নির্বাচিত করার
অযৌতিক দাবী জানান। তাতে আমি স্বীকৃতি না দিলে তারা ক্ষিপ্ত
হয়ে গাড়ীর সামনে শুয়ে পড়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। এ ব্যাপারে পৌর মেয়র
তৌহিদুর রহমান মানিক বলেন, সম্মেলনে উপস্থিত নেতাকর্মীদের বাক
বিতন্ডতার কারণে সম্মেলন ভুন্ডুল হয়ে যায়। এব্যাপারে থানা অফিসার
ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক পুলিশ
পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।

Check Also

রায়ে আমৃত্যু উল্লেখ না করলে যাবজ্জীবন ৩০ বছর

যমুনা নিউজ বিডি ঃ যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কারাভোগ করতে হবে বলে রায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com