Breaking News
Home / সারাদেশ / চট্টগ্রাম বিভাগ / বান্দরবানে অপহরণের পর হত্যা, ৬ আসামির যাবজ্জীবন

বান্দরবানে অপহরণের পর হত্যা, ৬ আসামির যাবজ্জীবন

যমুনা নিউজ বিডিঃ বান্দরবানের রাজবিলায় অপহরণের পর হত্যা মামলায় ৬ আসামীকে যাবজ্জীবন ও দুই লাখ টাকা করে অর্থদ-ের আদেশ দিয়েছে বিজ্ঞ আদালত।  বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) বান্দরবান অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবু হানিফের আদালত এই রায় দেন।

আদালত ও আইনজী সূত্রে জানা যায়, বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের চাইপাড়া থেকে ২০১১ সালের ৬ই এপ্রিল ক্যথই মারমাথকে অপহরণ করে নিয়ে দূর্বত্তরা। পরে দিন পাশ্ববর্তী স্থান থেকে অপহৃতের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী হ্লামেনু মারমা বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।উক্ত ঘটনায় দীর্ঘ শুনানী শেষে ১৫ জন স্বাক্ষী এবং চার আসামির স্বীকারোক্তী মূলক জমাবন্দিতে গ্রেফতারকৃত পাঁচ জনথসহ ৬ আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদ- এবং প্রত্যেকথকে দুই লাখ টাকা করে অর্থদ-ের আদেশ দিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবু হানিফের আদালত।গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলেন-উবাচিং মারমা, সাচিং প্রু মারমা, মংহ্লাচিং মারমা, রেজাউল করীম, উমংপ্রু মারমা। অপরজন পলাতক আসামী পুলুশে মারমা। অর্থদ-ের অর্থ হতে অর্ধেক রাষ্ট্রীয় কোষাগারে এবং অবশিষ্ট অর্ধেকাংশ ভিকটিমের স্ত্রীথকে ক্ষতিপুরণ হিসাবে প্রদানের আদেন দেয়া হয়।আইনজীবী মো. ইকবাল করিম জানান, স্থানীয় বাসিন্দার নূরুল কবীরকে অপহরণ করাকে কেন্দ্র করে মধ্যস্থতাকারী হিসাবে মামলার ভিকটিম ক্যথুই চিং মারমাকে অপহরণ করে হত্যা করা হয় ২০১১ সালের এপ্রিল মাসে।এ ঘটনায় স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় আদালত ৬ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদ-ের এবং প্রত্যেক আসামিকে ২ লাখ টাকা করে অর্থদ-ের আদেশ দিয়েছেন। রায়ে আমরা সন্তোষ্টু। পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করে সাজা কার্যকরে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নাজির বেদারুল আলম।

Check Also

গাবতলীতে মেয়র প্রার্থী রাজু পাইকারের লিফলেট বিতরণ

আল-আমিন মন্ডলঃ গতকাল সোমবার বিকেলে বগুড়ার গাবতলী পৌর সদরে দোয়া ও সমর্থন চেয়ে লিফলেট বিতরণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com