Home / Uncategorized / বগুড়ায় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার

বগুড়ায় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার

শাজাহানপুর (বগুড়া) ঃ বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় চাঁদা আদায়ের অভিযোগে ইউনুস আলী (৫৫) নামে কমিউনিটি পুলিশিংয়ের  আঞ্চলিক কমিটির সভাপতিকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

এদিকে কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির নেতার অভিযোগ, পুলিশ `কমিউনিটি পুলিশিং’ এর গঠনতন্ত্র না জেনেই ইউনুস আলীকে গ্রেপ্তার করেছে।

শনিবার বিকেলে গ্রেপ্তারকৃত ইউনুস আলীকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে পুলিশ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করে।

গ্রেপ্তারকৃত ইউনুস আলী শাজাহানপুর উপজেলার অন্তর্গত বগুড়া পৌরসভার ২১ ওয়ার্ডের বেজোড়া দক্ষিনপাড়া কমিউনিটি পুলিশিং এর আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি ও উপজেলার রানীরহাট এলাকার ইভা চিকিৎসালয় নামের এক ফার্মেসীর মালিক ও পল্লীচিকিৎসক।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ইউনুস আলী কমিউনিটি পুলিশিংয়ের নামে চাঁদা আদায়ের রশিদ ছাপিয়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা আদায় করতেন। এ ঘটনায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অপরদিকে কমিউনিটি পুলিশিং শাজাহানপুর উপজেলার শাখার সভাপতি আবু জাফর আলী জানান, কমিউনিটি পুলিশিং এর গঠনতন্ত্রের তহবিল গঠন অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সার্বিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য সদস্যদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়, সেবাভোগী বা অধিবাসীদের কাছ থেকে এককালীন অনুদান, যে কোন ব্যক্তির কাছ থেকে অনুদান, সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আর্থিক অনুদান, বিজ্ঞাপন ও অন্য কোন প্রচারণার উৎস থেকে অর্থ সংগ্রহ ও কোন বানিজ্যিক বা আয়ের উৎস সৃষ্টি করে অর্থ সংগ্রহ করে তহবিল গঠন করা যাবে। অথচ থানা পুলিশ কমিউনিটি পুলিশিংয়ের গঠনতন্ত্র না জেনে ইউনুস আলীকে গ্রেপ্তার করেছে।

স্থানীয়রা জানান, গত ১৮ নভেম্বর সন্ধার দিকে স্থানীয় একদল দূর্বৃত্ত বেজোড়া হিন্দুপাড়ার নির্মল নামের এক ব্যক্তিকে ফাঁসানোর জন্য তার বসতবাড়ির পানির ট্যাংকির ভিতর দুইটি ধারালো চাপাতি রেখে দেয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিষয়টি গ্রামবাসি জানতে পেরে ওই রাতেই পানির ট্যাংকির ভিতর থেকে চাপাতি দু’টি উদ্ধার করে নির্মলের বাড়িতেই রেখে দেন। পরে নির্মল বেজোড়া কমিউনিটি পুলিশিংয়ের আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি ইউনুস আলীর কাছে জমা দিয়ে আইনী সহায়তা চান। তবে ইউনুস আলী পুলিশ প্রশাসনকে না জানিয়ে পরের দিন রাতে কমিটির কার্যালয়ে বসে নিজেই বিষয়টি নিস্পত্তি করেন এবং ধারালো অস্ত্র দু’টি গায়েব করে ফেলেন। কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির এখতেয়ারের বাহিরে এমন কার্যক্রম করায় ইউনুস আলীর প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্থানীয়রা।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দীন জানান, কমিউনিটি পুলিশিংয়ের নামে চাঁদা আদায়ের রশিদ ছাপিয়ে ইউনুস আলী বিভিন্ন জনের কাছ থেকে অর্থ নেয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার ইউনুস আলীকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Check Also

কঙ্গোতে জঙ্গি হামলায় ৪৬ জন নিহত

যমুনা নিউজ বিডিঃ আফ্রিকার দেশ ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে সন্দেহভাজন ইসলামি জঙ্গিদের হামলায় ৪৬ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com