Breaking News
Home / রাজনীতি / ধামাইনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক চান তরুণ উদীয়মান নেতা আহসান হাবীব সোহেল

ধামাইনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক চান তরুণ উদীয়মান নেতা আহসান হাবীব সোহেল

তারিকুল আলম, সিরাজগঞ্জঃ আসন্ন ধামাইনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক চান ধামাইনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক , তরুন উদীয়মান সমাজসেবক মোঃ আহসান হাবীব(সোহেল)।তার রাজনৈতিক জীবন শুরু ৫ম শ্রেনী থেকে ছাত্র অবস্থায়ই  স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। তার বাবা যুদ্ধাহত   বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ নজরুল ইসলাম। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শে অনুভূতি হয়ে   ছাত্র লীগের একজন কর্মী হিসেবে কাজ শুরু করেন।২০০৮ সালে ধামাই নগর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৯ সালের ২৪মে ধামাইনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে কাউন্সিলদের প্রত্যক্ষ ভোটে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।  সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই সিরাজগঞ্জ ৩ রায়গঞ্জ তাড়াশ সলংগার মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃআব্দুল আজিজ’র সহযোগিতায় ইউনিয়নের রাস্তা ঘাট, কালভার্ট, ব্রীজ, মসজিদ, মাদ্রাসা,এতিমখানা, কবরস্থান, মন্দির, স্কুল, কলেজ ‘র উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখছেন।
একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন , আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর মূললক্ষ্য হবে চেয়ারম্যান পদ পেশা নয় জনগণের সেবা করাই আমার মূল লক্ষ্য।    জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত গ্রামকে শহরায়ন করার লক্ষ্যে আমি নৌকা প্রতিক পেয়ে নির্বাচিত হয়ে কাজ করবো। তিনি আরও বলেন, করোনা দুর্যোগকালে  নিজ উদ্যেগে  কর্মহীন চার শত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দিয়েছি। ১৫০জন কর্মহীন পরিবারকে নগদ অর্থ প্রদান করেছি। এবং বিভিন্ন সময় অসুস্থ রোগী ও  অসহায় কন্যা দায়গ্রস্তদের সহযোগিতা করে আসছি ।  ধামাইনগর ইউনিয়নে করোনাকালে প্রায় ৫০টা মসজিদে নিজ উদ্দোগে সাবান ও সাবান দানি নিয়মিত প্রদান করেছি। এবং বিভিন্ন হাট বাজারে হাত ধোয়ার ব্যাবস্থা করেছি। দলমত নির্বিশেষে সকল মানুষের আপত বিপদে বিভিন্ন সময় পাশে দাড়িয়েছি। আমার বাবা ১৯৭১ সালে নিজের জীবনের কথা  না ভেবে  দেশের মানুষের কথা ভেবে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর আহবানে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েন।দেশ স্বাধীনের পর দেশের মানুষের সেবা করার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ১৯৯৩ সালে যুদ্ধোগ্রস্থ দেশের মানুষের সেবা করার জন্য কুয়েত মিশনে তিন বছর এক মাস জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা প্রদান করেন। সেখান থেকে দেশে ফিরে আজোবধী পর্যন্ত মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন। আমার বাবার সেই আদর্শকেই  বুকে লালন করে ধামাই নগর ইউনিয়নের মেহনতী মানুষের জন্য কাজ করে যাবো। আমি নৌকা প্রতীক পেয়ে নির্বাচিত হয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃআব্দুল আজিজ’র সহযোগিতায় দূর্নীতি মাদক ওবাল্যবিয়ে মুক্ত ইউনিয়ন গরে তুলব ইনশাল্লাহ।

Check Also

আ’লীগ গণতন্ত্রের মুখোশ পরে জনগণকে বোকা বানায়: ফখরুল

যমুনা নিউজ বিডিঃ ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্রের মুখোশ পরে শুধু জনগণকে বোকা বানায় বলে …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com