Home / জাতীয় / আওয়ামী লীগের দুই মেয়াদে ২০ লাখ কোটি টাকার উন্নয়ন

আওয়ামী লীগের দুই মেয়াদে ২০ লাখ কোটি টাকার উন্নয়ন

যমুনা নিউজ বিডি: ২০০৯ সালের ১৩ জানুয়ারি থেকে শুরু করে ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর। দুই মেয়াদে ১০ বছরের শাসনামল পার করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ একাদশ জাতীয় সংসদের মুখোমুখি হবে। এই সময়ে দেশে উন্নয়ন হয়েছে ২০ লাখ কোটি টাকারও বেশি। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর এটি উন্নয়নের সবচেয়ে বড় রেকর্ড বলে জানিয়েছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়।

দলটির উন্নয়ন নিয়ে কথা হচ্ছে বিভিন্ন মহলে। পদ্মা সেতু, পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, মেট্রোরেল, মাতারবাড়ী বিদ্যুৎকেন্দ্র, রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র, রামু-মিয়ানমারের কাছে ঘুমধুম পর্যন্ত সিঙ্গেল লাইন ডুয়েল গেজ ট্র্যাক নির্মাণ, এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণ, পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দর এবং সোনাদিয়া গভীর সমুদ্রবন্দর প্রকল্পগুলোর মতো বড় বড় প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে এই ১০ বছরের মধ্যেই।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে দাবি করা হচ্ছে, স্বাধীনতার স্বপক্ষের এই রাজনৈতিক দলের দুই আমলেই বাংলাদেশের উন্নয়নের সর্বোচ্চ রেকর্ড অর্জিত হয়েছে। প্রায় ২০ লাখ কোটি টাকার উন্নয়ন করেছে দলটি। স্বাধীনতার পর উন্নয়নের এমন রেকর্ড অন্য কোনো রাজনৈতিক দলের এখন পর্যন্ত নেই। দেশের এমন কোনও জায়গা পাওয়া যাবে না, যেখানে সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। এখন সময় এসেছে টেকসই উন্নয়নের প্রতি নজর দেওয়ার।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, শুধু গত ১০ বছরেই ২ হাজার ৩০৮টি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করেছে ক্ষমতাসীন দল। বিপুলসংখ্যক এইসব প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ২০ লাখ ৬৮ হাজার ৮৭৭ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির একনেকের ১৫১টি বৈঠকে এইস প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। অগ্রাধিকার হিসেবে সরকারের ফার্স্ট ট্র্যাকভুক্ত প্রকল্পগুলোই আগে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে ২০০৮-০৯ অর্থবছরে ৬৯টি প্রকল্পে ১৩ হাজার ৭৮৩ কোটি টাকা, ২০০৯-১০ অর্থবছরে ২২৫টি প্রকল্পে ৮০ হাজার ৪৬৯ কোটি টাকা, ২০১০-১১ অর্থবছরে ২৫০টি প্রকল্পে ১ লাখ ১২ হাজার ১২৬ কোটি টাকা, ২০১১-১২ অর্থবছর ১৬৮টি প্রকল্পে এক লাখ ৬১ হাজার ২৬০ কোটি টাকা, ২০১২-১৩ অর্থবছরে ১৫১টি প্রকল্পে ১ লাখ ৬ হাজার ৪০৬ কোটি, ২০১৩-১৪ অর্থবছর ২১২টি প্রকল্পে এক লাখ ২১ হাজার ৯৬২ কোটি টাকা এবং ২০১৪-১৫ অর্থবছরে ২১২টি প্রকল্পে ১ লাখ ৬৩ হাজার ৯৯২ কোটি টাকা, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ২৭৮টি প্রকল্পে ২ লাখ ৭১ হাজার ৯৪৯ কোটি টাকা, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ২৫২টি প্রকল্পে ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৫২৮ কোটি টাকা, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৩১৮টি প্রকল্পে ৩ লাখ ৬৬ হাজার ৪২৯ কোটি টাকা এবং সর্বশেষ ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১৭৩টি প্রকল্পে ২ লাখ ৮৫ হাজার ৯৭৩ কোটি ৫৪ লাখ টাকা অনুমোদন করেছেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে বর্তমান সরকারের প্রথম মেয়াদে অনুমোদিত প্রকল্প ব্যয়ের পরিমাণ ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৮৩০ কোটি টাকা। দ্বিতীয় মেয়াদে ১ হাজার ১৩৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের বিপরীতে অনুমোদন হয়েছে ১৩ লাখ ৩৩ হাজার ৭৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ লাখ ৮৩ হাজার কোটি টাকা, বৈদেশিক সহায়তা থেকে ৫ লাখ ১৩ হাজার কোটি এবং বাস্তবায়নকারী সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৩৭ হাজার কোটি টাকা। যদিও ২০০৫-০৬ অর্থবছরে মোট ৪৩ প্রকল্পে ব্যয় হয়েছিল মাত্র ১০ হাজার ৪২৪ কোটি টাকা।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নমুখী সরকার। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বাজায় থাকার কারণে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে মনোযোগ বাড়ানো সম্ভব হয়েছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষকে যে স্বপ্ন দেখিয়েছেন, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে। ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের দেশে উত্তরণ এবং ২০৪১ সালে উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার নীতি-কৌশল ও লক্ষ্য বাস্তবায়ন হচ্ছে। উন্নয়ন প্রকল্পও গ্রহণ করা হচ্ছে সেভাবে।

Check Also

১৭ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতির সাক্ষাৎ চেয়ে ঐক্যফ্রন্টের চিঠি

যমুনা নিউজ বিডি: আগামী ১৭ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সাক্ষাৎ চেয়ে চিঠি দিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এ …

Powered by themekiller.com