July 13, 2024, 7:31 am

রুমায় যৌথবাহিনীর অভিযানে কেএনএফ সদস্য নিহত

যমুনা নিউজ বিডি: বান্দরবানের রুমায় যৌথবাহিনীর অভিযানে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) এক সশস্ত্র সদস্য নিহত হয়েছেন। গতকাল বুধবার সকালে রুমার পাইন্দু ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের জুরভারাংপাড়া থেকে ওই কেএনএফ সদস্যের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ভানলাল খিয়াং বম (৩০) জুরভারাংপাড়ার বাসিন্দা লাল মিন সন বমের ছেলে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অ্যাডমিন) হোসাইন মোহাম্মদ রায়হান কাজেমি জানান, জুরভারাংপাড়া থেকে কেএনএফ সদস্যের মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। যৌথবাহিনীর অভিযানে ওই কেএনএফ সদস্য নিহত হন।

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, গত মঙ্গলবার রুমা উপজেলার বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ে যৌথবাহিনী অভিযান চালায়। সেই অভিযানে কেএনএফ সদস্য ভানলাল খিয়াং বম গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন।

এদিকে বান্দরবানের রুমা ও থানচি উপজেলায় সোনালী ও কৃষি ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া কেএনএফের সন্দেহভাজন পাঁচ সদস্যকে দুদিনের রিমান্ড শেষে আবারও কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। রিমান্ড শেষে গতকাল দুপুরে বান্দরবানের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুল হক। কারাগারে পাঠানো পাঁচজন হলেন রেমথাং লিয়ান বম (৩৭), সানজু খুম বম (৩৮), লাল হোম লিওন বম (৩৭), লাল রাম লিয়াং বম (৪০) এবং জোহান বম (৪৫)।

গত ২ এপ্রিল রুমা উপজেলার সোনালী ব্যাংকে ডাকাতি করে অর্থ লুট করে সশস্ত্র লোকজন। পুলিশের ১০টি এবং আনসার সদস্যদের চারটি অস্ত্রও লুট করে নিয়ে যান তারা। অপহরণ করা হয় ব্যাংকটির ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে। দুদিন পর রুমার একটা পাহাড়ি এলাকা থেকে ছাড়া পান তিনি। রুমার ঘটনার এক দিন পর ৩ এপ্রিল থানচি উপজেলার সোনালী ও কৃষি ব্যাংকেও দিনদুপুরে অর্থলুটের ঘটনা ঘটে। দুটি ঘটনায় পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কেএনএফ জড়িত বলে জানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এরপর থেকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে রুমা ও থানচিতে অভিযান চালাচ্ছে যৌথবাহিনী। যৌথবাহিনীর এই অভিযান সমন্বয় করছে সেনাবাহিনী। অভিযানে কেএনএফের বেশ কয়েকজন সদস্য নিহত হয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © jamunanewsbd.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD