সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন

অবৈধ বদলিবাণিজ্য ঠেকাতে নতুন সফটওয়্যার

যমুনা নিউজ বিডিঃ অবৈধ পন্থায় বদলিবাণিজ্য ঠেকাতে তৈরি হচ্ছে নতুন সফটওয়্যার। আগামী জানুয়ারি থেকেই নতুন এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকদের বদলির জন্য আবেদন গ্রহণ করা হবে। আশা করা হচ্ছেÑ নতুন এই নিয়মে কোনো শিক্ষক তার কাক্সিক্ষত স্কুলে বা জেলায় বা উপজেলায় বদলি হতে চাইলে তাকে আর কোনো প্রকার ভোগান্তিতে পড়তে হবে না। সফটওয়্যারের মাধ্যমে আবেদন জমা হবে এবং ওই শিক্ষক কোনো প্রকার অর্থের লেনদেন ছাড়াই স্বল্প সময়ের মধ্যে বদলি হতে পারবেন। এমনকি কোনো কারণে তিনি যদি বদলির সুযোগ না পান তাহলেও যৌক্তিক কারণ তাকে জানিয়ে দেয়া হবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগামী জানুয়ারি থেকেই নতুন নিয়মে এবং সফটওয়্যারের মাধ্যমে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করতে চায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। নতুন বছর থেকে সফটওয়্যার-ভিত্তিক শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পেলে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করা হবে বলে ডিপিই সূত্রে জানা গেছে।
সূত্র আরো জানিয়েছে, গত ২১ নভেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভায় ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করার সুপারিশ করা হয়েছে। জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত বদলির ক্ষেত্রে সফটওয়্যার-ভিত্তিক কার্যক্রম চালাতে বলা হয়েছে।
ডিপিই থেকে জানা গেছে, আগামী বছর থেকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করা হতে পারে। এ লক্ষ্যে বদলি কার্যক্রম পরিচালনা করতে সফটওয়্যারের কাজ ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করা হবে। সেটি হলে আগামী জানুয়ারি থেকে অনলাইনে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করা হবে। বদলি হতে আগ্রহী শিক্ষকদের নতুন করে সফটওয়্যারের মাধ্যমে আবেদন করতে বলা হবে। প্রাপ্যতা ও যৌক্তিক কারণ থাকলে তাদের পছন্দের বিদ্যালয়ে বদলি করা হবে।
অনেক আগে থেকেই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলি নিয়ে নানা ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। এসব বন্ধে এ কার্যক্রম অনলাইন-ভিত্তিক করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একটি সফটওয়্যার তৈরি করে এর মাধ্যমে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। এরই মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেন ও ডিপিইর মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এটি উপস্থাপন করা হয়েছে।
এ বিষয়ে ডিপিই’র মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম জানিয়েছেন, শিক্ষকদের বদলিসংক্রান্ত প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
আমাদের সফটওয়্যারও রেডি হয়ে গেছে। মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে জানুয়ারি থেকে শিক্ষক বদলি কার্যক্রম শুরু করা হবে।
এ দিকে দ্রুত এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেন। তিনি বলেন, শিক্ষক বদলি একটি রুটিন কাজ। গত দুই বছর ধরে এটি বন্ধ রয়েছে। আগামী বছর থেকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে এ কার্যক্রম করা হতে পারে বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com