বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৮ অপরাহ্ন

নিষিধাজ্ঞার মধ্যেই ভারতে যাচ্ছিল দুই টন ইলিশ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ  দেশজুড়ে চলছে ইলিশ মাছ আহরণ, বিপণন ও মজুতসহ সব ধরনের সরবরাহে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা। ৩ অক্টোবর দিনগত রাতে এ নিষেধাজ্ঞা শুরু হয়। কিন্তু প্রথম দিনেই ভারতে রপ্তানি করা হচ্ছিল ২ মেট্রিক টন ইলিশ। সরকারি নির্দেশনা না মানায় এসব ইলিশ জব্দ করে কাসটমস কর্তৃপক্ষ।

উত্তর ত্রিপুরায় রপ্তানির জন্য সোমবার (৪ অক্টোবর) সকালে খুলনার আরিফ সি ফুড একটি ট্রাকে মৌলভীবাজারের চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে নিয়ে আসে এসব ইলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১ অক্টোবর থেকে এই প্রথম চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশন দিয়ে ভারতের ত্রিপুরায় ইলিশ মাছ রপ্তানি শুরু হয়। ২ অক্টোবর পর্যন্ত ভারতের কৈলাশহরে ৪ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানি করা হয়।

সোমবার খুলনার আরিফ সি ফুডের মালিক আরিফ হোসেন ভারতের কৈলাশহরে রপ্তানির জন্য দুই মেট্রিক টন ইলিশ নিয়ে আসেন। তার এক স্থানীয় সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ৩ অক্টোবর রপ্তানির জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে সরকারি অনুমোদন গ্রহণ করেছিলেন। তবে সরকারি নির্দেশনা শুরুর প্রায় ১০ ঘণ্টা পর ৪ অক্টোবর ইলিশ মাছ নিয়ে চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে আসেন আরিফ। ফলে চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশন কর্তৃপক্ষ ট্রাক বোঝাই ইলিশ জব্দ করে।

এ বিষয়ে কুলাউড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম বলেন, কাস্টমস কর্তৃপক্ষ এ মাছ সিলেট কাস্টমস কমিশনারের কার্যালয়ে নিয়ে যাবে। ৩ অক্টোবর দিনের মধ্যে যদি এ মাছ চাতলাপুর স্থল শুল্ক স্টেশনে এসে পৌঁছাত, তাহলে বিধি মোতাবেক মাছ ভারতে রপ্তানির সুযোগ ছিল।

 

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com