বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন

শাজাহানপুরে মসজিদের ভিতর হাতাহাতি,পরে রক্তাক্ত সংঘর্ষ

শাজাহানপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার শাজাহানপুরে মসজিদের জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধে জেরে মসজিদের ভিতরে দু-গ্রæপের হাতাহাতি পরে মারপিটে রক্তাক্ত সংঘর্ষ ঘটনা ঘটেছে।
উপজেলার বৃ-কুষ্টিয়া ফকির পাড়া জামে মসজিদ জমি জবর দখলকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটি ও দখলকৃত মালিকের পক্ষে বিপক্ষেদু-গ্রæপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।
গত শুক্রবার জুম্মা নামাজ শেষে মসজিদে খতিবকে কিল-ঘুষি ও মসজিদ কমিটির পক্ষের ছেলের পথ আটকিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ উঠেছে।
মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা মুক্তিযুদ্ধো যাচাই বাছাই কমিটির আহ্বায়ক মুক্তিযুদ্ধা লিয়াকত আলী জানান,গত শুক্রবার জুম্মা নামাজ পর হঠাৎ করে আওয়ামী লীগনেতা আবুল কালাম আজাদ বাচ্চু গ্রæপে ৩-৪ জন লোক ইমাম ইয়াহিয়ার কাছে মসজিদ হিসাব নিকাশ জন্য চাপ দেন ও মসজিদ কমিটিকেও মসজিদ জমি সংকান্ত বিষয়ে আরজু সঙ্গে আপোষ মীমাংসা করতে জোর দাবি করে।
তিনি আরও বলেল, মসজিদ হিসাব নিকাশ চাইলে আমরা কমিটির লোকজন কাছে চাইবে।আমরা হিসাব দিতে বাধ্য।তার লোকজন কেন অযথা মসজিদে ভিতরে বিশৃঙ্খলা পরিবেশ সৃষ্টি করে ইমাম সাহেব গায়ে হাত তুলবে? এই কাজ করা তাদের ঠিক হয়নি।
স্থানীয় এলাকাবাসীরা জানান,আব্দুল খালেক নামের এক ব্যাক্তি বি-বøক এলাকায় ৫ শতক জমি বৃ-কুষ্টিয়া জামে মসজিদকে দানপত্র দলিল করে দেন।বর্তমানে ওই জমি জেলা ভূমি কতৃক অধিগ্রহণ করে নোটিশ জারি করলে জোর পূবক দখল মালিক বিষয়টি সমাধানে দফায় দফায় বৈঠক করা হলেও তা নিঃস্পত্তি হয়নি।
বৃ-কুষ্টিয়া জামের মসজিদ কমিটির ক্যাশিয়ার ফারুক মাস্টার বলেন,বৃ-কুষ্টিয়া মসজিদে নামে দলিল মূলে বি-বøক এলকায় ৫ শতাংশ জমিটি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর হক আরজু জাল দলিল সৃষ্টি তৈরি মাধ্যমে দীর্ঘদিন জবর দখল করেছিল। মসজিদের জমিটি এশিয়ায় হাইওয়ে অধিভুক্ত হলে সে জমি অধিগ্রহণে ক্ষতি পূরণের অর্থ হাতিয়ে নেওয়া চেষ্টা করে। পরবর্তীতে মসজিদ কমিটি ন্যায় বিচারে মামলা করলে মামলাটি জেলা জজ আদালত -২ বিচারাধীন রয়েছে।তারপরও মসজিদ কমিটি সঙ্গে আপোষ মিমাংসা জন্য ৭ লাখ টাকার প্রস্তাব দেন জাহিদুল হক আরজু।মসজিদ কমিটি লোকজন রাজি না হওয়া বিভিন্ন ভাবে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে।

ঘটনাকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটির লোকজনকে মারপিট করে রক্তাক্ত করার ঘটনা এলাকায় চরম বিশৃঙ্খলা ও উত্তেজনা পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে।
এ ঘটনায় ইলিয়াজ আলী মন্ডল বাদি হয়ে রবিবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।তিনি বলেন মসজিদের জমির কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিতে বিভিন্ন সন্ত্রসী বাহিনী দিয়ে আমাদের ছেলে উপর আক্রমণ করছে।
অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে,মসজিদের ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার অনুমান ৯টার দিকে মসজিদ কমিটির সদস্য ইলিয়াস ছেলে আরাফাত মনোয়ার ইমন,মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি ছোট ভাই আমানউল্লাহ,ভাতিজা আব্দুল্লাহ আল মামুন বাবু সহ স্থানীয় বি-বøক বাজার থেকে কারযোগে বাড়ি ফেরায় পথিমধ্যে ক্ষুদ্রকষ্টিয়া চারমাথায় গাড়ি গতিরোধ করে বৃকুষ্টিয়া গ্রামের মৃত রমজান আলী ছেলে আবুল কালাম আজাদ বাচ্চু (৫৫) ও লাল মাহমুদের ছেলে আমিনুল ইসলাম বাচ্চু (৫৭) সহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন লোহার রড, বেলচা, কাঠে দিয়ে এলোপাথারি মারপিটে কারগাড়ি ভাংচুর, মাথায় আঘাত লেগে প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হতে থাকে। পরবর্তীতে স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুতর আহত অবস্থায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়।
আওয়ামী লীগনেতা আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে বলেন, এসমস্ত ঘটনা মিথ্যা এবং হয়রানি মূলক। উল্টো তারাই আমাকে মেরেছে বলে ডাক্তারের চিকিংসা নিয়ে থানায় অভিযোগ দায়েরের কথা বলেন।
এ বিষয়ে জাহিদুল হক আরজু সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তিনি সংযোগ বিছিন্ন করে দেন।
শাজাহানপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নান্নু খান জানান, মসজিদে জমি জমাকে কেন্দ্র করে মারপিটে অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com