সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

১৫ই আগস্টের মাস্টার মাইন্ডদের বিচারের আওতায় আনা হোক : শেখ পরশ

যমুনা নিউজ বিডিঃ আজ ১৫ই আগস্ট রবিবার, যুবলীগ যথাযোগ্য মর্যাদায়, শ্রদ্ধায়, ভালোবাসায় স্মরণ করলো ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদকে। মানবসভ্যতার ইতিহাসে কলঙ্কময় ও বেদনাবিধুর এই দিনটিকে সামনে রেখে যুবলীগ বেশকিছু কর্মসূচি পালন করেছে।

কর্মসূচির মধ্যে সূর্যোদয়ক্ষণে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত রাখা, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর নেতৃত্বে সকাল ৭:৩০ মিনিটে ধানমন্ডি-৩২-এ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন, ৮:১৫ মিনিটে বনানী কবরস্থানে ১৫ই আগস্টে সকল শহীদের স্মরণে শ্রদ্ধাজ্ঞলি ািনবেদন ও ফাতেহা পাঠা এবং সকাল ১১টায় টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে যুবলীগের প্রতিনিধি টিম। এছাড়াও ১৫ই আগস্টে সকল শহীদের স্মরণে সকাল ১০টায় ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ও সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ১০০০ অসহায়-দুঃস্থ মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

ধানমন্ডি-৩২-এ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ শেষে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ বলেন-আগস্ট মাস আমাদের কাছে অত্যন্ত বেদনাবিধূর ও কষ্টের। ১৯৭৫ সালের এই দিনে ঘাতকেরা নির্মমভাবে হত্যা করেছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তাঁর পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের। এই হত্যাকা-ের নীলনঁকশা যারা তৈরি করেছিল তারা এখনও বিনাশ হয়ে যায়নি। তারা জামাত-বিএনপি’র আশ্রয়ে-প্রশয়ে এদেশেই রয়ে গেছে। ’৭৫-এর নরপিশাচ কুচক্রী মহল যারা, তারাই ’৭১-এর মহান মুক্তিযুদ্ধে পরাজিত শক্তি। তাদেরই সম্পৃক্ততা রয়েছে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলায়। তারাই আমার নেত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ১৯ বার হামলা চালিয়েছে। সুতরাং এদেশ থেকে ’৭৫-এর শত্রুদের বিনাশ করতে হলে বঙ্গবন্ধুসহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের হত্যার সাথে জড়িত দেশি-বিদেশী চক্রান্তকারী নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে তদন্ত কমিশন গঠন করতে হবে।

অসহায়-দুঃস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন-আগস্ট মাস শোকের মাস। আমরা এই মাসে হারিয়েছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, হারিয়েছি ফজিলাতুন নেছা মুজিব, শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মণি ও তাঁর সহধর্মিণী আরজু মণিসহ অনেককে। যারা ’৭৫-এর হত্যাকা- ঘটিয়েছিল তারা এখনও সক্রিয়। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা, হরতাল-অবরোধে গাড়ীতে অগ্নিসংযোগ করে মানুষ হত্যাসহ নানা অপকর্ম করে যাচ্ছে জামাত-বিএনপি।

তিনি অসহায়-দুঃস্থ মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন-যতদিন করোনা মহামারি থাকবে ততদিন যুবলীগের নেতা-কর্মীরা অসহায় মানুষের পাশে থাকবে। তিনি আরও বলেন-জামাত-বিএনপি দেশকে ভালোবাসে না। ইতিহাস সে কথাই বলে। বিএনপি-জামাত সন্ত্রাসী ও জঙ্গি সংগঠন। তারা যদি মানুষকে ভালোবাসতো তাহলে ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা করতো না। তারা যদি দেশকে ভালোবাসতো তাহলে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করতে পারতো না। এখনও তারা বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষকে ধ্বংস করার জন্য অর্থ ব্যয় করে যাচ্ছে।

বিভিন্ন কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন-বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এড. মামুনুর রশীদ, ডা. খালেদ শওকত আলী, মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি, হাবিবুর রহমান পবন, রফিকুল ইসলাম, মোঃ এনামুল হক খান, ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, তাজ উদ্দিন আহমেদ, জসিম মাতুব্বর, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা, সুব্রত পাল, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, রফিকুল আলম জোয়ার্দার সৈকত, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মাজহারুল ইসলাম, ডা. মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোঃ সাইফুর রহমান সোহাগ, জহির উদ্দিন খসরু, সোহেল পারভেজ, আবু মুনির মোঃ সহিদুল হক চৌধুরী রাসেল, মশিউর রহমান চপল, এড. ড. শামীম আল সাইফুল সোহাগ ,পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ হারিছ মিয়া শেখ সাগর, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আবদুল হাই, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক এড. হেমায়েত উদ্দিন মোল্লা, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা খলিলুর রহমান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এড. মুক্তা আক্তার, উপ-প্রচার সম্পাদক আদিত্য নন্দী, উপ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা, উপ-অর্থ সম্পাদক সরিফুল ইসলাম দুর্জয়, উপ-শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার সম্পাদক কাজী খালিদ আল মাহমুদ টুকু, উপ-আন্তর্জাতিক সফেদ আশফাক আকন্দ তুহিন, উপ-ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোঃ আলতাফ হোসেন, উপ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রাশেদুল হাসান সুপ্ত, উপ-তথ্য ও যোগাযোগ সম্পাদক এন আই আহমেদ সৈকত, উপ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ মিসির আলি, উপ-জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক সামছুল কবির রাহাত, উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শামছুল ইসলাম পাটোয়ারী, উপ-শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ফিরোজ আল আমিন, উপ-কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মোল্লা রওশন জামির রানা, উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ গোলাম কিবরিয়া শামীম, উপ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হরে কৃষ্ণা বৈদ্য, উপ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দা সানজিদা শারমীন, সহ-সম্পাদক আবির মাহমুদ ইমরান, আতাউর রহমান উজ্জল, মির্জা মোঃ নাসিউল আলম শুভ্র, মোঃ মাইদুল ইসলাম, ব্যারিস্টার আরাফাত হোসেন খান, মোঃ আলামিনুল হক আলামিন, আবদুর রহমান জীবন, নাজমুল হুদা ওয়ারেছী চঞ্চল, মোঃ আরিফুল ইসলাম, সামিউল আমিন, মোঃ আলমগীর হোসেন শাহ জয়, মোঃ কামরুল হাসান লিংকন, মোঃ বাবলুর রহমান বাবলু, এ কে এম মুক্তাদির রহমান শিমুল, হিমেলুর রহমান হিমেল, আহতাসামুল ভূইয়া রুমি, মোঃ রাশেদুল ইসলাম সাফিন, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ কামরুজ্জামান, মোঃ মনিরুজ্জামান পিন্টু,

এ্যাড. মোঃ জয়নাল আবেদীন চৌধুরী রিগ্যান, মোঃ নাছির উদ্দিন মিন্টু, কার্যনির্বাহী সদস্য কায়কোবাদ ওসমানী, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, এড. মোঃ নাজমুল হুদা নাহিদ, এড. মোঃ গোলাম কিবরিয়া, প্রফেসর বিমান বড়–য়া, শেখ মাতিন মুসাব্বির সাব্বির, প্রফেসর ড. আরশেদ আলী আশিক, ব্যারিস্টার তৌফিকুর রহমান সুজন, জি এম গাফফার হোসেন, শাম্মি খান, মোঃ শহিদুল ইসলাম লাকি, মোঃ মজিবুর রহমান, ইঞ্জি. মোঃ মুক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, এড. মোঃ শওকত হায়াত, ইঞ্জি. মোঃ আসাদুল্লাহ তুষার, ব্যারিস্টার চৌধুরী মৌসুমি ফাতেমা, মানিক লাল ঘোষ, মোঃ মজিবুর রহমান মুজিব, এড. এম এ কামরুল হাসান খান আসলাম, সরদার মোহাম্মদ আলী মিন্টু, মোঃ অলিদ হোসেন, ড. আশিকুর রহমান শান্তু, মোঃ বজলুল করিম মীর, এবিএম আরিফ হোসেন, এড. শেখ মোঃ তরিকুল ইসলাম, সৈয়দ আলাউল ইসলাম সৈকত, ডা. মোঃ আওরঙ্গজেব আরু, এড. মোঃ সাজেদুর রহমান চৌধুরী বিপ্লব, মোঃ আসাদুজ্জামান সুমন, মোঃ আরিফুল ইসলাম, ড. মোঃ রায়হান সরকার রিজভী।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com