বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন

বগুড়া শজিমেকের মনোরোগ চিকিৎসকের যশোরে আত্মহত্যা!

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। গত শনিবার সকাল ৮টার দিকে শহরের পুরাতন কসবা বিমান অফিসপাড়া এলাকার ভাড়া বাসায় এই ঘটনা ঘটে।

ওই চিকিৎসকের নাম আবদুস সালাম সেলিম (৫৫)। সম্প্রতি তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতাল থেকে বগুড়ায় বদলি করা হয়।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এটি খুবই দুঃখজনক ঘটনা। আমি তার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি জানিয়েছেন, বদলিজনিত কারণে ডাক্তার সেলিম খুব পেরেশানিতে ছিলেন। অন্য একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের অধীনে তিনি চিকিৎসাও নিচ্ছিলেন। অনেকটা ভালো ছিলেন। গতকালও তিনি স্থানীয় একটি ক্লিনিকে বেশ কয়েকজন রোগী দেখেছেন বলে তার স্ত্রী আমাকে জানিয়েছেন।’ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্যে হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ডা. সেলিমের স্ত্রী মনিরা বেগম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সকালে তিনি রান্না করছিলেন। এ সময় ডা. সেলিম ঘরের কার্নিশে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। মাস তিনেক ধরে ডা. সেলিম মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন। সম্প্রতি তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতাল থেকে বগুড়ায় বদলি করা হয়। তিনি সেখানে যেতে চাননি। এসব কারণে তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন বলে তিনি মনে করছেন।

ঘটনাটি নিশ্চিত করে যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি মো. তাজুল ইসলাম। তার লাশ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়। এ ছাড়া থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ডা. সেলিমের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ডা. সেলিম এর দুই মেয়ে ও এক ছেলে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ছিল। পরে দাফনের জন্য গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বাদ মাগরিব জানাযাও পারিবারিক কবর স্থানে দফন করা হবে।

এ বিষয়ে বগুড়া শজিমেকের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. রেজাউল আলম জুয়েল বলেন, ‘ডা. সেলিমের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। তবে কিভাবে তার মৃত্যু হয়েছে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাবে না।’

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com