বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন

সৈয়দপুরে কঠোর অবস্থানে প্রশাসন ১৯ জনের কারদন্ড

সৈয়দপুর প্রতিনিধিঃ  করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আজ তৃতীয় দিনের চলমান লকডাইনে কঠোর অবস্থানে রয়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুর প্রশাসন। সরকার ঘোষিত লকডাইন বাস্তবায়নে করতে আজ শনিবার  (৩ জুলাই) শহরে  ১৯ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে সাজা প্রদান করা হয় এবং ৩৫ মামলায় ৩৫হাজার ৭শত টাকা জরিমানা করা হয়।

লকডাউনের তৃতীয় দিন শনিবার সকাল থেকেই পাল্টে গেছে সৈয়দপুরের চিত্র। শহরে অযথা ঘোরাঘুরি, উৎকুস জনতার জটলা ও মাক্স না পরার কারনে ৩৫ জন পথচারীকে আটক করেছে স্থানীয় প্রশাসন। শহরের পাঁচমাথা মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্স্রের সামনে আটককৃতদের রাস্তায় বসিয়ে রাখে। বাজারে নেই অন্যান্য দিনের মতো মানুষের ভীর। শহর জুড়ে দফায় দফায় টহল দিচ্ছে পুলিশের গাড়ী। নেই যানবাহনের ছুটে চলা, বন্ধ রয়েছে দোকানপাট।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্রে জানা যায়, সরকারি আদেশ অমান্য করায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ৩৫ জনকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালত ১৯ জনকে দন্ডবিধির ১৮৬০ এর ১৮৮ ধারায় ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৩৫ মামলায় ৩৫হাজার ৭শত টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) রমিজ আলম  এ আদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্তদের নীলফামারী জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) রমিজ আলম জানান, কঠোর লকডাউনে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন নিশ্চিত কররতে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

উলে¬খ্য গত শুক্রবার রাতে একই অপরাধে শহরের চিনি মসজিদ এলকার মোশারফ হোসেন (২৮) নামে এক যুবককে ১মাসের বিনাশ্রম কারদন্ড দেয়া হয় ভ্রম্যমান আদালতে। অভিযান চলাকালে সৈয়দপুর থানা পুলিশ, স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com