বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:০১ অপরাহ্ন

দেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৯১ লাখ: বিবিএস

যমুনা নিউজ বিডিঃ বাংলাদেশের মানুষের এখন প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৭২ দশমিক ৮ বছর। এর মধ্যে নারীর প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৭৪ দশমিক ৫ বছর আর পুরুষের গড় আয়ু ৭১ দশমিক ২ বছর। অর্থাৎ পুরুষের তুলনায় নারীরা বেশি দিন বাঁচেন। দেশে বর্তমান জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ৯১ লাখ ১ হাজার জনে (২০২১ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত)। জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১ দশমিক ৩০ শতাংশ। গত বছর প্রত্যাশিত আয়ু ছিল ৭২ দশমিক ছয় বছর। সে হিসাবে দেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে।

গতকাল সোমবার বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) প্রকাশিত ‘বাংলাদেশ স্যাম্পল ভাইটাল স্ট্যাটিসটিকস-২০২০’ প্রতিবেদনে এসব চিত্র উঠে এসেছে।

রাজধানীর আগারগাঁও পরিসংখ্যান ভবনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। প্রতিবেদনে জানানো হয়, দেশে মোট প্রজনন হার এখন ২ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ, প্রতি হাজারে মাতৃমৃত্যুর হার ১ দশমিক ৬৩ জন, ১৫ বছর ও তার বেশি বয়সী নারী শিক্ষার হার ৭২ দশমিক ৯ শতাংশ। দেশে বিদ্যুত্সুবিধা আছে ৯৬ দশমিক ২ শতাংশ পরিবারে। স্যানিটারি টয়লেট-সুবিধা আছে ৮১ দশমিক ৫ শতাংশ পরিবারে। ১৫ বছর ও তদূর্ধ্ব জনসংখ্যা ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর হার ৪৩ দশমিক ৫ শতাংশ, এর মধ্যে পুরুষ ৫২ দশমিক ৭ শতাংশ এবং মহিলা ৩৪ দশমিক ৩ শতাংশ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রত্যাশিত গড় আয়ু বেড়েছে। দেশের মানুষের স্বাস্থ্য ও শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে। জনবহুল দেশ হওয়া সত্ত্বেও জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে দেশের উল্লেখযোগ্য সাফল্য আছে। একজন মা এখন গড়ে দুটি সন্তানের জন্ম দেন। এখন থেকে ৫০ বছর পেছনে তাকালে দেখা যাবে, তখন একজন মা গড়ে ছয়টি সন্তানের জন্ম দিতেন। আমাদের দেশের মানুষ এখন শিক্ষিত হয়েছে, সচেতনতা বেড়েছে।

প্রতি ১০ বছর পরপর আদমশুমারি হয়ে থাকে। এই আদমশুমারি বা জনশুমারির তথ্য প্রতি বছর সমন্বয়ের জন্য এ ধরনের পরিসংখ্যান তৈরি করে বিবিএস। মূলত, নির্ধারিত কিছু এলাকায় মৃত্যু, বিয়ে, আগমন, বহির্গমন এক আর্থসামাজিক তথ্য সংগ্রহ করে জনমিতি সম্পর্কিত সূচকসমূহ প্রকাশ করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com