মঙ্গলবার, ২৭ Jul ২০২১, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

বগুড়ার বাজারে মৌসুমি ফলের সমাহার

সামিয়া সুলতানাঃ ‘মিষ্টি ফলের রসে ভরা মধুমাস’। বছরজুড়ে কমবেশি ফল পাওয়া গেলেও সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায় বৈশাখের শেষ সময়ে এবং জ্যৈষ্ঠ মাসের শুরু থেকে এবারো বাজারে দেখা মিলেছে রসালো ফল জ্যৈষ্ঠ মাসে আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, আনারস, তরমুজ, ডেউয়া, লটকন, জাম উঠেছে ফলের দোকানগুলোতে। ফলের এই মৌ মৌ ঘ্রাণে জ্যৈষ্ঠ মাস হয়ে উঠেছে মধুময়। সেই সঙ্গে মিলবে তৃপ্তিও। গ্রামের মানুষ আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে আম-কাঁঠালের উপহার পাঠিয়ে থাকে এই জ্যৈষ্ঠেই। শহরেও ফলের উৎসব এখন। বগুড়া শহরে বিভিন্ন ফলের দোকানগুলোয় নজর কাড়ছে এখন গ্রীষ্মের মৌসুমি ফল।

মঙ্গলবার  সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শহরের কাঠালতলা, ষ্টেশন রোড,রেল লাইন বাজার ঘুরে দেখা যায়, মৌসুমি ফল সাজিয়ে রেখেছেন বিক্রেতারা। ক্রেতাদের তেমন ভিড় নেই। ফলের চাহিদা বেড়েছে মৌসুমি ফলের।

এ বিষয়ে কাঠালতলা এলাকার ফল বিক্রেতারা জানান, ফলও পাকতে শুরু করেছে। বাজারে যেমন ফল আসছে, তেমনি ক্রেতাও আছে। তবে দাম একেক জায়গায় একেক রকম।

ফল বিক্রেতারা আরো জানান, প্রতিকেজি পাকা আম ৮০ টাকা থেকে জাতভেদে ১৬০ টাকা, প্রতি ১০০ পিস লিচু ২০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা, জামরুল ৮০টাকা, প্রতিকেজি জাম ১৫০ টাকা, তরমুজ কেজি ৩৫ থেকে ৪০টাকা, প্রতিটি পাকা কাঁঠাল ২০ টাকা থেকে শুরু করে আকার ভেদে ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ফলের ক্রেতা বজলুর রশীদ বলেন, এবার সব ফল যেন একসঙ্গেই এসেছে। অন্যান্যবার প্রতিটি ফল কিছু সময় পর পর এলেও এবার আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, তরমুজ সবই এখন বাজারে। এটা বেশ ভালো। তাই বেশকিছু ফল কিনেছি।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com