সোমবার, ২১ Jun ২০২১, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন

‘ইয়াস’ মোকাবিলায় ভোলার ৩ লক্ষাধিক মানুষকে সরিয়ে নেয়ার প্রস্তুতি

যমুনা নিউজ বিডিঃ ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ মোকাবিলায় ভোলার উপকূলীয় অঞ্চলের তিন লক্ষাধিক মানুষকে সরিয়ে নেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। ভোলার উপকূলীয় অঞ্চলের ৩ লাখ ১৮ হাজার বাসিন্দাকে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা প্রসাসন। জেলার সাত উপজেলার ৪০টি দ্বীপ ও চরকে ঝুঁকিপূর্ণ চিহ্নিত করে তাদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’ মোকাবিলায় জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক তৌফিক-ই-লাহী চৌধুরী। রবিবার (২৩ মে) বিকালে জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জেলা প্রশাসক আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় জেলার ৭০৯টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে ৭৬টি মেডিক্যাল টিম। অন্যদিকে সিপিপি’র ১৩ হাজার স্বেচ্ছাসেবী ছাড়াও রেডক্রিসেন্ট এবং স্কাউটস কর্মীদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খোলা হয়েছে ৮টি কন্ট্রোল রুম।

ঘূর্ণিঝড়ে যাতে উপকূলীয় অঞ্চলে ক্ষয়ক্ষতি কম হয় সে লক্ষ্যে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান ভোলার জেলা প্রশাসক।

সবাইকে সাহসিকতার সাথে দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতি মোকাবিলার আহ্বান জানিয়ে জেলা প্রশাসক জানান, জেলা-উপজেলা পর্যায়ের সকল কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্বাস্থ্যবিভাগসহ জেলা প্রসাসনের গুরুত্বপূর্ণ বিভাগের কর্মকর্তা এবং মাঠ পর্যায়ের আনসার-ভিডিপি সদস্যসহ সবাইকে প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়াও প্রতিবন্ধী, নারী ও শিশুদের নিরাপত্তায়ও আলাদা টিম গঠন করা হবে। প্রস্তুত থাকবে ফায়ার সার্ভিসের ১৪ টিম ও স্বাস্থ্য বিভাগের ২০০ কমিউনিটি ক্লিনিকও।

জরুরি সভায় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সুজিত হাওলাদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুর কালাম আজাদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমান, ভোলা প্রেসক্লাব সভাপতি এম হাবিবুর রহমান, সম্পাদক অমিতাব অপুসহ জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থা কমিটির অন্যান্য কর্মকর্তারা।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com