মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৮:২৮ অপরাহ্ন

News Headline :
বগুড়া ধুনট- গোসাইবাড়ী রাস্তাটির বেহাল দশা ভোগান্তি চরমে শেখ রাসেল দিবসে বগুড়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন কাপড় ও মিষ্টি বিতরণ বগুড়ায় করোনা হেল্প সেন্টারে করোনা রোগীর পরিবারের নিকট সাবেক এমপি লালু’র ফ্রি ওষুধ প্রদান সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত অনলাইন রিটার্ন জমায় ১৩বার দেশ সেরা কুমিল্লা ভ্যাট কমিশনারেট গাবতলীতে দু’পক্ষের উত্তেজনা থাকায় মসজিদে মিলাদ করতে দেয়নি পুলিশ গাবতলীতে এডিপির অর্থায়নে ফুটবল বিতরণ উলিপুরে ক্ষতিগ্রস্থ মন্দির পরিদর্শন করলেন ভারতীয় সহকারি হাইকমিশনার সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শিবগঞ্জে শান্তি শোভাযাত্রা সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা

জাতীয় মহিলা সংস্থায় ‘বঙ্গমাতা জাদুঘর ও বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ উদ্বোধন

যমুনা নিউজ বিডিঃ মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে জাতীয় মহিলা সংস্থায় ‘বঙ্গমাতা জাদুঘর ও বঙ্গবন্ধু কর্ণার’ উদ্বোধন করলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। আজ সোমবার রাজধানীর বেইলি রোডে জাতীয় মহিলা সংস্থা ভবনে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে বঙ্গমাতা জাদুঘর ও মুজিব কর্ণার উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে জাতীয় মহিলা সংস্থায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিবের জীবন, কর্ম ও আদর্শের ওপর বই, ছবি,  ভিডিওডকুমেন্টারি ও বিভিন্ন বিষয়ে সমৃদ্ধ সংগ্রহশালা তৈরি করা হয়েছে।

বঙ্গমাতা জাদুঘর ও মুজিব কর্ণার উদ্বোধনকালে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, জাতির পিতা আজীবন নারীর ক্ষমতায়ন ও সমতা প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট ছিলেন। তিনি সংবিধানে নারীর অধিকার নিশ্চিত করেন। মুক্তিযুদ্ধে নির্যাতিত নারীদের পূনর্বাসনের জন্য নারী পুনর্বাসন বোর্ড গঠন করেন। নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নের জন্য কুটির শিল্পসহ কর্মমুখী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন। বঙ্গমাতা নির্যাতিত নারীদের পূনর্বাসন ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। বঙ্গমাতা জাতির পিতার বিশ্বস্ত সহচর ও সাহসী শক্তি হয়ে আজীবন পাশে ছিলেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে তার রয়েছে অপরিসীম অবদান।   প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা আরও বলেন, বঙ্গমাতা জাদুঘর ও বঙ্গবন্ধু কর্ণারে স্থাপিত বই, ছবি ও ঐতিহাসিক বিষয় নতুন প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে। যার মাধ্যমে বঙ্গমাতা ও বঙ্গবন্ধুর জীবন, আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের  চেতনা ছড়িয়ে যাবে। এটা জাতীয় মহিলা সংস্থার অত্যন্ত প্রশংসনীয় একটা উদ্যোগ।   বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতা সংবিধানে নারীর অধিকার নিশ্চিত করেন। তিনি সর্বস্তরে নারীর ক্ষমতায়নের জন্য কার্যক্রম গ্রহণ করেন। জাতীয় মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান চেমন আরা তৈয়বের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস, জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান, শিশু একাডেমির মহাপরিচালক জ্যোতি লাল কুরী, অতিরিক্ত সচিব ফরিদা পারভীন, অতিরিক্ত সচিব ড. মহিউদ্দীন আহমেদ, জাতীয় মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক বেগম মাকসুরা নূর এবং জাতীয় মহিলা সংস্থার নির্বাহী ও পরিচালনা পরিষদের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com