শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৮:৩২ অপরাহ্ন

News Headline :
সিরাজগঞ্জ চৌহালী উপজেলায় যমুনা নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ-০১ নিয়মনীতিহীন আইপি টিভির বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা : তথ্যমন্ত্রী চরকার আদিজন্ম ভারত, ইউরোপের শিল্পে যেভাবে জনপ্রিয় হলো রাজবাড়ীতে অস্ত্র ও গুলি সহ দুই সন্ত্রাসী গ্রেফতার আফগানিস্তানে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬০, নিখোঁজ ১৫০ পরিদর্শন ও নিরীক্ষা বিভাগের ডিডিকে পবিত্রতা অনুশীলনের জন্য এমওই প্রদান আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সীমান্তে ফের সংঘাত, নিহত ৩ আর্মেনীয় সেনা ৫ আগস্টের পরও বিধিনিষেধ বহালের সুপারিশ স্বাস্থ্য অধিদফতরের গোবিন্দগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২ যুবক নিহত টেকনাফে ১ হাজার ইয়াবাসহ মাদক কারবারি আটক

মিরসরাইয়ে আগুনে ৮ বসতঘর পুড়ে ছাই

চট্রগ্রাম প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের মিরসরাইতে মাত্র ১২ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক দুটি অগ্নিকান্ডের ঘটনায় পুড়ে ছাঁই ৮টি বসতঘর। পরনের কাপড় ছাড়া বাকি সবকিছুই আগুনে ভস্মিভূত ৮ পরিবারের ৪০ সদস্যের। বর্তমানে তাদের ঠাঁই হয়েছে গাছতলায়। তবে স্থানীয়রা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অত্যন্ত নগন্য। পৃথক দুটি অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ক্ষয়-ক্ষতির পরিমান প্রায় ২০ লক্ষ টাকা বলে জানিয়েছে ক্ষতিগ্রস্থরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৫ মার্চ) রাত ১টায় উপজেলার মায়ানী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মনু ভুঁইয়া পাড়া গ্রামের ছেরু হাফেজ বাড়িতে প্রথম অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ৬ পরিবারের ৬টি বসতঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ওই বাড়ির সৈয়দুল হকের রান্না ঘর থেকে আগুনের সুত্রপাত হতে পারে বলে স্থানীয়রা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন। এ ঘটনায় ৬ পরিবারের নগদ টাকা ও মূল্যবান আসবাপত্র সহ প্রায় ১৪ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন শাহ আলম, রবিন, মো. নুরুল ইসলাম, মো. সাদ্দাম, মো. নিজাম, সৈয়দুল হক। অন্যদিকে একইদিন মাত্র ১২ ঘন্টার ব্যবধানে সোমবার (১৫ মার্চ) দুপুর ১টায় উপজেলার হাদিফকির হাট গাছ বাড়িয়া এলাকার গোল বক্স সওদাগর বাড়িতে পৃথক অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আরো ২টি বসতঘর আগুনে ভস্মিভুত হয়। এতে ক্ষয় ক্ষতির পরিমান প্রায় ৬ লক্ষ টাকা। ক্ষতিগ্রহস্তরা হলেন জাকির হোসেন ও তার চাচাত ভাই কামাল হোসেন। এখানে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত নিশ্চিত করা যায়নি। মিরসরাই ফায়ার সার্ভিস এর ষ্টেশন অফিসার ইমাম হোসেন পাটোয়ারি জানান, হাদি ফকির হাটের অগ্নিকান্ডের ঘটনায় আমারা খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। ফলে পাশের অন্য একটি বসতি পুড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পায়। কিন্তু মায়ানির ঘটনা গভীর রাতে হওয়ার কারনে এবং দূরত্ব বেশি হওয়ায় সময় মতো পৌছতে পারেনি আমাদের কর্মীরা। তাছাড়া অগ্নিকান্ডের খবর সময় মতো পাইনি আমরা। আমাদের কর্মীরা পৌছতে যে সময় লেগেছে ততোক্ষণে পুরো বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মিরসরাই উপজেরা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, সরকারিভাবে আমরা প্রথম ৬ পরিবারের জন্য নগদ ৫ হাজার টাকা ও সামান্য ত্রাণের ব্যাবস্থা করেছি। এছাড়া অন্য দুই পরিবারের জন্য ও একই সাহায্য পাঠানো হবে বলে তিনি জানান।

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com