সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৪:১২ অপরাহ্ন

শুল্ক-ভ্যাটের চক্রে সংবাদপত্র শিল্প

আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সংবাদপত্র সরবরাহ বা বিক্রির ওপর ভ্যাট আরোপ না থাকলেও উত্পাদন বা ছাপাখানা পর্যায়ে হিসাব কষে রাজস্ব পরিশোধ করতে হবে। ক্ষেত্রবিশেষে তা বাড়ানো হয়েছে।

রেয়াত নেওয়ার সুযোগটুকুও রাখা হয়নি। এতে সংবাদপত্রের উত্পাদন ব্যয় বাড়বে। আবার ভ্যাট আইন ২০১২-এর মারপ্যাঁচে বিজ্ঞাপন খাতে আদায় না হলেও হিসাব কষে রাজস্ব পরিশোধ করতে হবে। এমনকি পরের মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে এই রাজস্ব পরিশোধ না করলে ১৬ তারিখ থেকেই সংশ্লিষ্ট সংবাদপত্রটি আনুষঙ্গিক কোনো উপকরণ আমদানি করতে পারবে না। এভাবে শুল্ক-ভ্যাটের চক্রে পথে বসবে সংবাদপত্র শিল্প।

সংবাদপত্র প্রকাশে জড়িত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অষ্টম ওয়েজ বোর্ডের আওতায় সারা দেশে ২০০ থেকে ২৫০ জন জনবল নিয়ে ২৪ পৃষ্ঠার দৈনিক সংবাদপত্রের একটি কপি পাঠকের হাতে তুলে দিতে কর্তৃপক্ষের ব্যয় হয় ২৪ টাকা ৯০ পয়সা। সংবাদপত্রের কপিটি ১০ টাকায় বিক্রি করতে হকারকে কমিশন বাবদ দিতে হয় চার টাকা। পত্রিকা কর্তৃপক্ষ পায় ছয় টাকা। সে হিসাবে নিট লোকসান ১৮ টাকা ৯০ পয়সা।

আয়-ব্যয়ের তথ্যটি নেওয়া হয়েছে গড়ে দৈনিক ৮০ হাজার থেকে ৯০ হাজার কপি ছাপানো সংবাদপত্রের হিসাব ধরে। জনবল, কত কপি প্রকাশ করা হবে, উপকরণ ব্যবহারের পরিমাণ, পরিবহন ব্যয়সহ আরো বেশ কিছু খাতের ওপর নির্ভর করে এই হিসাব কমবেশি হবে।

বাংলাদেশে যে কাগজে সংবাদপত্র ছাপানো হয় তার প্রায় পুরোটাই আমদানি করতে হয়। বেসরকারি পর্যায়ে অল্প কিছু প্রতিষ্ঠান নিউজপ্রিন্ট উত্পাদনে এলেও সরকারি নীতি সহায়তার অভাবে সেসবের বেশির ভাগই এখন বন্ধ। স্থানীয়ভাবে দু-একটি প্রতিষ্ঠান উত্পাদন চালিয়ে গেলেও তা চাহিদার অতি সামান্য। প্রস্তাবিত বাজেটে এই নিউজপ্রিন্ট আমদানিতে ৫ শতাংশ শুল্ক ছাড়াও ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

হিসাব কষে দেখা যায়, এক টন নিউজপ্রিন্টে ২৪ পৃষ্ঠার একটি পত্রিকার আট হাজার ২০০ থেকে আট হাজার ৩০০ কপি ছাপানো সম্ভব হয়। এক টন নিউজপ্রিন্ট আমদানিতে গড়ে খরচ পড়ে ৫৪ হাজার টাকা। ৮০ হাজার থেকে ৯০ হাজার কপি ছাপানো একটি পত্রিকার শুধু এই নিউজপ্রিন্ট খাতেই প্রতিদিন ব্যয় হয় প্রায় ছয় লাখ টাকা। শুল্ক-ভ্যাট পরিশোধ করে একেক কপি ছাপাতে সাত টাকার নিউজপ্রিন্ট খরচ হয়।

সংবাদপত্র ছাপাতে কাগজের পরই অতি প্রয়োজনীয় উপকরণ কালি ও প্লেট। ভ্যাট-শুল্ক মিলিয়ে ছাপাখানার কালিতে ৬২ শতাংশ কর পরিশোধ করতে হয়। প্লেটের আমদানি শুল্ক ১ শতাংশ থাকলেও অন্য সব কর-শুল্ক মিলিয়ে ৭.৫০ শতাংশ, প্রিন্টিং কেমিক্যালে ৫ শতাংশ শুল্কসহ মোট কর ৩৫ শতাংশ বিদ্যমান রয়েছে। ৯০ হাজার কপি সংবাদপত্র ছাপাতে দৈনিক প্রায় ৫৬ হাজার টাকার প্লেট লাগবে। এখন সংবাদপত্রের একটি কপি প্রকাশে পাঁচ টাকা ১৮ পয়সার কালি ও প্লেট খরচ হলেও শুধু বাড়তি রাজস্ব আরোপের কারণে আগামী অর্থবছরে এই হিসাব অনেকটা বেড়ে যাবে। (বিস্তারিত পড়ুন শনিবারের প্রিন্ট সংস্করণে)

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com