রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৫:৪০ অপরাহ্ন

পুতুল দিয়ে যৌন হেনস্তার বর্ণনা দিল শিশু

একটি পুতুল দিয়ে ‌যৌন নির্যাতনের ঘটনা বর্ণনা করতে বলা হলো এক ৫ বছরর শিশুকে। আর এই নির্দেশ দেওয়া হলো ভারতের দিল্লির উচ্চ আদালতের পক্ষ থেকে।
৫ বছরের ওই শিশুর সঙ্গে কী ধরনের আচরণ হয়েছে তা মুখে ঠিক ভাবে বলতে না পারলেও একটা পুতুল দিলে তা খেলার ছলে সে আসল ঘটনা জানিয়ে দেয় আদালতে উপস্থিত সবাইকে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি পুতুলটির গোপনাঙ্গ দেখিয়ে আদালতে জানায় তার সঙ্গে কী ঘটেছিল। আক্রান্ত শিশুকে অভিযোগকারীর আইনজীবীর ‘‌কুরুচিকর’ প্রশ্নবাণ থেকে বাঁচাতেই আদালত এ ধরনের নির্দেশ দেন।

ট্রায়াল কোর্টের বিচারক এ ধরনের অভিনব পদ্ধতিতে শিশুটিকে পুতুল খেলার ছলে দেখাতে বলে তার সঙ্গে কী ঘটনা ঘটেছে। শিশুটির বর্ণনার ওপর ভিত্তি করেই ২৩ বছরের অভিযুক্ত যুবকের সাজা ঘোষণা করা হয়। বিচারপতি এস পি গর্গ অভিযুক্তের আবেদন খারিজ করে জানায়, ৫ বছরের শিশুর অধিকার রয়েছে পুতুলের মধ্য দিয়ে দেখানো অভিযুক্ত তার সঙ্গে কী আচরণ করেছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, শিশুটির গোপনাঙ্গে কোনো নখের আঁচড় পাওয়া যায়নি, কিন্তু তা বলে কোনো ঘটনা ঘটেনি তা অনুমান করে নেওয়া ঠিক নয়। এমনকি শিশুটির মা তার সম্মান রক্ষার জন্য শিশুটির অভ্যন্তরীণ মেডিক্যাল পরীক্ষাও করাতে দেননি।

২০১৪ সালের জুলাই মাসে শিশুটি তার ১০ বছরের ভাইয়ের সঙ্গে স্কুলে যাচ্ছিল। সেই সময় ২৩ বছরের হান্নি নামের এক ব্যক্তি শিশুটির ভাইকে ১০ রুপি দিয়ে দোকান থেকে কিছু কিনে আনতে বলে। সেই সুযোগে শিশুটিকে অপহরণ করে পালায় হান্নি। উত্তর–পশ্চিম দিল্লির নারেলাতে ওই শিশুটিকে নিয়ে গিয়ে তার ওপর যৌন নির্যাতন করা হয়। যৌন নির্যাতনের আগে তাকে নগ্ন করে মারধরও করে অভিযুক্ত। ঘটনার পর অভিযুক্ত শিশুটিকে বাড়ির কাছে ফেলে রেখে দিয়ে যায়। এক প্রতিবেশী ওই শিশুটিকে কাঁদতে দেখে। তাকে স্কার্ট ছাড়া রাস্তায় দেখে খুব অবাক হয়। শিশুটিকে বাড়িতে পৌঁছে দেন ওই প্রতিবেশী।
প্রথমে শিশুটি এতটাই আতঙ্কে ছিল যে তার বাড়িতে কিছু বলেনি, পরে সে তার মাকে সব জানায়।
সূত্র : দ্য হিন্দুস্তান টাইমস

Please Share This Post in Your Social Media


© All rights reserved ©  jamunanewsbd.com