Home / সারাদেশ / ঢাকা বিভাগ / ১৫ আগস্ট ঘিরে ধানমণ্ডি ও বনানীর হোটেল-মেসে তল্লাশি

১৫ আগস্ট ঘিরে ধানমণ্ডি ও বনানীর হোটেল-মেসে তল্লাশি

যমুনা নিউজ বিডিঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসকে কেন্দ্র করে রাজধানীর ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর ও বনানী কবরস্থান এলাকার আশপাশের আবাসিক হোটেল, গেস্টহাউজ ও মেসগুলোতে তল্লাশি চালাচ্ছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এ ছাড়া সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

বৃহস্পতিবার রাতে ডিএমপির সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোতে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদুর রহমান বলেন, ‘ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর এলাকার হোটেল ও মেসগুলোতে তল্লাশি করা হচ্ছে। হোটেলগুলো বন্ধ থাকবে না। কিন্তু যারা হোটেলে থাকবেন তাদেরকে বাংলাদেশি পরিচয়পত্র ও যথাযথ কারণ দেখিয়ে হোটেলে অবস্থান করতে হবে। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট এলাকায় আমরা আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছি।’

গুলশান জোনের সহকারী উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘হোটেল ও মেসগুলোতে আমরা তল্লাশি চালাচ্ছি। পাশাপাশি বাসা-বাড়িতেও তল্লাশি চালাচ্ছি। যাতে করে নতুন কোনো লোক এলাকায় না ঢুকতে পারে। সেজন্য আমরা সব ধরনের নিরাপত্তা বৃদ্ধি করেছি। একই সঙ্গে এলাকায় ব্লক রেইড চালাচ্ছি।’

এদিকে ডিএমপি মিডিয়া ও পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ জানানো হয়েছে, ‘নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে এবং বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে আসা প্রত্যেক ব্যক্তিকে মেটাল ডিটেকটর দিয়ে তল্লাশি করা হবে। সবাইকে আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি, ব্লক রেইড, চেকপোস্টের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। ধানমণ্ডি ৩২ ও বনানী কবরস্থান ও আশপাশের এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। ভেন্যুকেন্দ্রিক অস্থায়ী পুলিশ কন্ট্রোল রুম থেকে সার্বক্ষণিক সিসিটিভি মনিটরিং করা হবে।‘

এতে বলা হয়, ‘ধানমণ্ডি ৩২ ও বনানী কবরস্থানকেন্দ্রিক নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পোশাকে ও সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। একইসঙ্গে অনুষ্ঠানস্থল ডগ স্কোয়াড ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট দিয়ে সুইপিং করা হবে। ধানমণ্ডি লেকে মোতায়েন থাকবে নৌ পুলিশের টহল। ১৫ আগস্টের অনুষ্ঠানকে ঘিরে ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর কেন্দ্রিক নিরাপত্তায় মোতায়েন থাকবে ফায়ার টেন্ডার ও অ্যাম্বুল্যান্স। প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য দুই ভেন্যুতেই থাকবে মেডিক্যাল টিম। নিরাপত্তার স্বার্থে আগামী ১৪ থেকে ১৫ আগস্ট ২০২০ পর্যন্ত ধানমণ্ডি ৩২ ও বনানী কবরস্থানসংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত হোটেল, গেস্ট হাউস বন্ধ থাকবে এবং মেসগুলোতে পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হবে।

জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচিতে করোনাকালীন সংক্রমণ রুখতে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সম্মানিত নগরবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করছে ডিএমপি।

এদিকে বৃহস্পতিবার ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর এলাকায় গৃহীত নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেছেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

Check Also

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন উপলক্ষে নেস্কো লিমিটেড এর শ্রমিক কর্মচারীর উদ্যোগে কেক কর্তন

স্টাফ রিপোর্টারঃ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এর ৭৪ তম শুভ জন্মদিন উপলক্ষে বগুড়া সাতমাথা …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com