Breaking News
Home / সারাদেশ / রাজশাহী বিভাগ / সিরাজগঞ্জে গ্রামবাসীর উদ্যোগে সাঁকো নির্মাণ : আর্থিক সঙ্কটে উদ্যোক্তারা

সিরাজগঞ্জে গ্রামবাসীর উদ্যোগে সাঁকো নির্মাণ : আর্থিক সঙ্কটে উদ্যোক্তারা

যমুনা নিউজ বিডিঃ সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার রাণীপুরা গ্রামবাসীর অর্থায়নে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হয়েছে। এ অঞ্চলের প্রায় ১২ হাজার মানুষ দূর্ভোগ থেকে মুক্তি পেলেও উদ্যোক্তারা এখন আর্থিক সংকটে।  সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উক্ত গ্রামের পাশ দিয়ে যমুনা নদীর খরস্রোতা একটি শাখা বয়ে গেছে। শুকনো মৌসূমে পায়ে হেটে চলা গেলেও বর্ষা মৌসূমে দূর্ভোগের শেষ নেই ওই গ্রামবাসী।

এ অঞ্চলেল রানীপুরা, দেলুয়া, মনতলা, আফজালপুর, হাট বয়ড়া, ছোট বেড়া, খারুয়া, বেলকুচির চর, মুলকান্দী, কালাই, দশখাদাসহ বিভিন্ন গ্রামের প্রায় ১২ হাজারেরও অধিক মানুষ যাতায়াত করে। বিশেষ করে বর্ষার সময় শিক্ষার্থীসহ কৃষক, শ্রমিক, তাঁতী, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের চরম ভোগান্তির শিকার হতে হয়। এ ভোগান্তি থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালীর অনুদান, গ্রামবাসীদের চাঁদা ও ঋণ নিয়ে প্রায় ১০৩৫ ফুট দীর্ঘ বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হয়েছে।

এ বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণে এলাকার বিভিন্ন উৎস থেকে গৃহীত ঋণ পরিশোধ করতে পারছনা। এ ঋণ পরিশোধে সহযোগীতা করার জন্য এলাকার বিত্তশালীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান ওই গ্রামবাসী। বিশিষ্ট সমাজ সেবক, বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ছাত্র, ব্যবসায়ীসহ গন্যমান্য ব্যাক্তিদের উদ্যোগে এই সাঁকোটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়। পরে তাদের এই উদ্যোগের সঙ্গে সহমত প্রকাশ করে পুরো গ্রামবাসী। উদ্যেক্তারা সাংবাদিকদের বলেন, গ্রামবাসীর সহযোগীতায় প্রায় সোয়া ৩ লাখ টাকা ব্যায়ে এপ্রিল মাসের ১ম থেকে মে মাসের মাঝামাঝি এই সাঁকো নিমাঁণ করা হয়। এ নির্মাণ কাজের ঋণ পরিশোধে এখনও লক্ষাধিক টাকা প্রয়োজন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সোলেমান হোসেন বলেন, গ্রামবাসীর উদ্যোগে সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়েছে। কিছু টাকা ঋণও আছেন উদ্যোক্তারা। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করা হয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সাজেদুল বলেন, গ্রামবাসীর উদ্যোগে এই সাঁকোটি নির্মাণে নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। এজন্য সেখানে একটি ব্রীজ নির্মাণের ব্যবস্থা নেয়া হবে। বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আনিছুর রহমান বলেন, বর্ষার সময় ওই গ্রামের মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়।  গ্রামবাসীর অর্থায়নে নির্মিত সাঁকো দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এ সাঁকো নির্মাণে উপজেলা পরিষদ থেকে ২০ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। সেখানে ব্রীজ নির্মাণে উপজেলার মাসিক মিটিংয়ে আলোচনা করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় বরাবর ইতিমধ্যেই চিঠি পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Check Also

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেখা মিললো কাঞ্চনজঙ্ঘা

যমুনা নিউজ বিডিঃ বছরের চলতি মৌসুমে পঞ্চগড় তেঁতুলিয়া থেকে দেখা মিলেছে হিমালয় পর্বতমালার সর্বচ্চে পর্বত …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com