Breaking News
Home / সারাদেশ / ঢাকা বিভাগ / মাদারীপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে বসতঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ শ^শুরের বিরুদ্ধে\ ৬ বছরের শিশু অগ্নিদগ্ধ

মাদারীপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে বসতঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ শ^শুরের বিরুদ্ধে\ ৬ বছরের শিশু অগ্নিদগ্ধ

আরিফুর রহমান, মাদারীপুরঃ মাদারীপুর সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের পূর্ব হাজরাপুর গ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে বসত ঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ উঠেছে শ^শুরের বিরুদ্ধে। রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনায় শিশু মিম আক্তার (৬) এর শরীরের পিঠের পুরো অংশ পুড়ে যায়। শিশুটি মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার রাস্তি ইউনিয়নের পূর্ব হাজরাপুর গ্রামে রাজ্জাক শেখ এর ছেলে আসলাম শেখ বিগত ৬ বছর পূর্বে মালয়েশিয়াতে চলে যায়। এরপর থেকে রাজ্জাক শেখের সাথে স্ত্রী সম্পা আক্তারের সাথে পারিবারিকভাবে বিরোধ চলে আসছিল। সম্পার শ^শুর তাকে বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যাওয়ার জন্য অনেকবার বলে। সম্পা ছেলে-মেয়েদের নিয়ে বাড়ি থেকে কোথাও চলে যাবে না। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। শনিবার বিকেলে রাজ্জাক শেখের মেয়ে বাড়িতে মিস্ত্রী নিয়ে আসে ভাইয়ের স্ত্রী, ছেলে-মেয়েদের ঘর তুলে দেয়ার জন্য। এ সময় রাজ্জাক শেখ পুনরায় তার মেয়ে ও পুত্র বধুকে বাড়িতে ঘর তুলতে বাধা প্রদান করে। এ নিয়ে বিকেল থেকে দুই জনের মধ্যে ঝগড়া হয়েছে। রাত তিনটার দিকে হঠাৎ করে সম্পা ঘরে আগুন দেখে চিকিৎকার করলে আসপাশের লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে এবং আগুন নিভিয়ে ফেলে। এ সময় ঘরের মালামালের সাথে শিশু মিম আক্তার আগুনে পুড়ে যায়। সকালে শিশুকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুত্রবধু সম্পা আক্তার বলেন, অনেকদিন ধরে আমার শ^শুর আমাদের বাড়ি থেকে চলে যেতে বলে। বাড়ি থেকে না গেলে আগুন দিয়ে ঘর পুড়িয়ে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছে। শনিবার বিকেলে আমার ননদ মিস্ত্রি নিয়ে আসে বাড়িতে ঘর তোলার জন্য। এ নিয়ে শ^শুর আমাকে ও আমার ননদকে গালিগালাজ করে। রাত ৩টার দিকে আমার ঘরের দরজা সামনে থেকে বন্ধ করে দিয়ে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। আমার চিৎকারে আশপাশের মানুষ এসে আমাদের ছেলে-মেয়েকে উদ্ধার করে। আমার মেয়েটার পিঠ আগুনে সম্পূর্ন পুড়ে গেছে। আমি এ ঘটনার কঠোর শাস্তির দাবি জানাই।
আগুনে পুড়ে যাওয়া শিশু মিম আক্তারের সাথে কথা হয়, শিশুটি জানায়, আমি ঘুমিয়েছিলাম। ঘরে আগুন লাগায় আমার শরীর অনেক পুড়ে গেছে। আমার দাদা আগুন দিয়েছে।
অভিযুক্ত রাজ্জাক শেখকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন।
রাস্তা ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য গোলাম মাওলা বলেন, পারিবারিক দ্ব›দ্ব চলে আসছিল শ^শুর ও পুত্রবধুর মধ্যে। এ ঘটনায় শ^শুর, শ^াশুড়ী ও পুত্রবধুকে নিয়ে আমরা শতাধিকবার বসে শালিস করেছি। শ^শুরকে বহুবার বলেছি। এক পর্যায়ে আমি এসে ঘর তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করি। তবে ঘরে আগুন দেয়ার ঘটনাটি খুব দুঃখ জনক।
মাদারীপুর সদর মডেল থানার ওসি মো. কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, আগুনের ঘটনা শুনে আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। যার ঘরে আগুন দেয়া হয়েছে সেই লোক বিদেশে থাকে। বিদেশ থেকে ফোনে আমাদের জানিয়েছে এটা পারিবারিক বিষয়। এ ব্যাপারে আমাদের কোন অভিযোগ নাই।
মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নুরুল ইসলাম বলেন, যে শিশুটি আগুনে পুড়ে গেছে তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এখন পর্যন্ত শিশুটি আমাদের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আছে।

Check Also

সয়দাবাদে জরুরী খাদ্য ও স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

তারিকুল আলম, সিরাজগঞ্জঃ সয়দাবাদে সাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার(২৯অক্টবর) সকালে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সয়দাবাদ …

error: Content is protected !!
%d bloggers like this:

Powered by themekiller.com