Home / সারাদেশ / ভেঙে গেছে ধলাই সেতুর সাইড স্লিপার, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

ভেঙে গেছে ধলাই সেতুর সাইড স্লিপার, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

যমুনা নিউজ বিডি: কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার-শমশেরনগর-শ্রীমঙ্গলের ব্যস্ততম সড়কের কমলগঞ্জ উপজেলার ভানুগাছ বাজার সংলগ্ন সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীনে ধলই নদীর উপর প্রায় ১৪ বছর আগে নির্মিত সেতুটি হঠাৎ করে পূর্ব অংশের সাইড স্লিপার ভেঙে পড়েছে। এই পথ দিয়ে এখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। ফলে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ঝুঁকি নিয়েই যান চলাচল করছে। সংশ্লিষ্ট বিভাগের পক্ষ থেকে লাল নিশানা টাঙিয়ে বিপদজনক হিসেবে চিহিুত করলেও এখন পর্যন্ত যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এদিকে কয়েক বছরের মধ্যে ব্রিজটি এভাবে ভেঙে পড়ায় জনমনে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। কমলগঞ্জের ধলাই সেতুর পিচ উঠে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে খানা খন্দ।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাজার-শমশেরনগর-শ্রীমঙ্গল সড়কের কমলগঞ্জের ধলাই সেতুটির ১৯৯৮ সালের ১ ডিসেম্বর তৎকালীন যোগাযোগ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর উপস্থিতিতে হুইপ উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেছিলেন। ঢাকার রূপায়ন নামক একটি কোম্পানি ৩ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ধলাই সেতুর নির্মাণ কাজ পায়। রাজনৈতিক কারণে পরে কাজটি হাতিয়ে নেন সিলেটের জনৈক ঠিকাদার। সেতু নির্মাণের কাজের শুরুতেই নানা অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। নির্মাণ কাজের সিডিউলের নিয়ম কানুনের তোয়াক্কা না করে সাব ঠিকাদার রাজনৈতিক প্রভাব কাটিয়ে কাজ করায় কাজের মান নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছিল।

এ বিষয়ে তখন যোগাযোগ মন্ত্রণালয়, সড়ক ও জনপথ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে স্থানীয়রা লিখিত অভিযোগ করলেও রহস্যজনক কারণে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ নিয়ে স্থানীয় পত্রপত্রিকায় লেখালেখি হলেও টনক নড়েনি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের।

নানা অনিয়ম দুর্নীতির মধ্যে তাড়াহুড়ো করে সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ করা হলে ২০০৫ সালের ২৫ ডিসেম্বর তৎকালীন অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমান ধলাই সেতুটির উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের ৬ বছরের মাথায় গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকেই সেতুটির পূর্ব অংশের পিচ উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হলে রাতের আঁধারে পাথর গালা দিয়ে তা সংস্কার করে স্থানীয় সড়ক ও জনপথ বিভাগ। বর্তমানে সেই সংস্কারকৃত গর্তগুলোর পিচ উঠে যাওয়ার পাশাপাশি পাশে আরো ৪-৫টি স্থানে পিচ উঠে গিয়ে ছোট-বড় নতুন গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বড় বড় সেতুগুলোর স্থায়ীত্ব ৬৫-৭০ বছর হলেও কমলগঞ্জের ধলাই সেতুটি উদ্বোধনের ৬ বছরের মাথায় একাধিক স্থানে গর্ত সৃষ্টি ও পিচ উঠে গেলেও মাথাব্যথা নেই সংশ্লিষ্ট বিভাগের।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সড়ক ও জনপথ বিভাগ, মৌলভীবাজার এর নির্বাহী প্রকৌশলী শেখ সোহেল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় কালের কণ্ঠকে বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে এটা মেরামত করেছি এক সপ্তাহ দেখার পর স্থায়ী সমাধান করার ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Check Also

বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন

যমুনা নিউজ বিডি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার শাহপুর গ্রামে পারিবারিক বিরোধে সুজন হোসেন (২৬) নামের এক …

Powered by themekiller.com